সংবাদটি প্রকাশ হয়েছেn: Wed, Jun 13th, 2018
bashundhara

মাগুরায় নি¤œমানের কাজের অভিযোগে ঠিকাদারের উপর হামলা কাজ বন্ধ করে দিয়েছে গ্রামবাসী

Magura MP pic_1সাইদুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধি মাগুরা : মাগুরার মানুষ এখন প্রতিবাদ করতে এবং দূর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে শিখেছে। গত কয়েক বছর যে কোন উন্নয়ন মূলক কাজে নি¤œ মানের সামগ্রী ব্যবহার সহ কোন দুর্নীতির প্রতিবাদ করা এ এলাকার লোক ভুলে গিয়েছিল। কোন কাজের প্রতিবাদ করলেই প্রতিবাদকারীদের নামে মিথ্যা চাঁদাবাজী মামলাসহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করা হত।

আর এ কারণেই কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পেতনা।। তবে মাগুরা সদর উপজেলা পরিষদের প্রকৌশল অধিদপ্তরের সড়ক সংস্কারে  নি¤œমানের কাজ করায় সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার এবং কর্মচারিদের মারধর এবং কাজ বন্ধ করে দিয়ে সাধারণ মানুষ অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে পারে তা প্রমান করেছে মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের সাধারণ মানুষ।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাধীন সদর উপজেলা পরিষদ প্রকৌশল বিভাগের তত্বাবধানে  উপজেলার রামদের গাতি থেকে রাজাপুর পর্যন্ত ৯৬ লক্ষ টাকা ব্যায়ে ২ দশমিক ১০ কিলোমিটার রাস্তাটির মেরামতের দায়িত্ব পায় ফরিদপুরের শ্রাবণী কন্সট্রাকশন ফার্ম। কিন্তু ওই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে রাজবাড়ির বাবর আলি নামে একজন সাব কন্ট্রাকটর কাজটি করছিলেন। কাজটিও প্রায় শেষ পর্যায়ে।  সম্প্রতি রাজাপুর স্কুলের সামনের অংশটি মেরামত হলেই কাজটি সম্পন্ন হতো। কিন্তু বিটুমিন কম দিয়ে সেখানে কাজ করার অভিযোগে রাজাপুর এলাকার কয়েকশত গ্রামবাসী জোটবদ্ধ হয়ে দুপুর ৩টার দিকে সাব কন্ট্রাকটর বাবর আলি, মিস্ত্রি তালেব হোসেন সহ অন্যান্যদের উপর হামলা চালিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। এ সময় মারমুখী গ্রামবাসীর হাত থেকে  রক্ষা পেতে মাগুরা সদর উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের দুই কর্মকর্তা পালিয়ে যায় বলে জানা যায়।

রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, গ্রামবাসী ফসিয়ার রহমান, আকতার হোসেনসহ আরো অনেকে অভিযোগ করেন, পুরো রাস্তা জুড়েই নি¤œমানের কাজ হয়েছে। কেউ কোন বাধা দেয়নি। কিন্তু রাজাপুর স্কুল এলাকায় এমনই কাজ হয়েছে যে, সকালে তৈরি রাস্তা দুপুরের আগেই উঠে যাচ্ছে। যে কারণে গ্রামের সাধারণ লোকজন জড়ো হয়ে তাদের উপর হামলা চালিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।

গ্রামবাসীর হামলার শিকার সাব কন্ট্রাকটর বাবর আলি বলেন, ১০ ফুট মতো কাজ বাকি ছিল। কিন্তু বিটুমিন ফুরিয়ে যাওয়ায় কাজ একটু হালকা হয়েছে। তবে কাজটুকু করে দিতে চেয়ে ছিলাম। কিন্তু তার আগেই আকতার নামে একটি ছেলের নেতৃত্বে শতশত লোক তাদের উপর হামলা চালিয়েছে।

এদিকে বিটুমিন কমের কথা সাব কন্ট্রাকটর স্বীকার করলেও সদর উপজেলা  প্রকৌশলী আনন্দ কুমার ঘোষ জানান ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, নির্মাণ প্রতিষ্ঠানটি তাদের মালামাল রাজাপুর স্কুল মাঠে রেখে কাজ করছিল। স্কুল কমিটি ঠিকাদারের কাছে স্কুলের রাস্তাটি করে দেওয়ার দাবি করে। কিন্তু ঠিকাদার তাদের দাবি মতো কাজটি  না করে দেওয়ায় হামলা চালানোর পাশাপাশি কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। বিষয়টি জানতে পেরে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।
সম্পাদনা : আ ই (জি-নিউজবিডি২৪ )

সর্বশেষ আপডেট

আরকাইভ

June 2018
T F S S M T W
« May   Jul »
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930