1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:৪৬ অপরাহ্ন

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ভুলে কোটি টাকার রাস্তা পাকা করন কাজ জনদুভোর্গে পরিনত!!

সিরাজুল ইসলাম রতন, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১ নভেম্বর, ২০২০
  • ১০ বার পঠিত

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ভুলে কোটি টাকার রাস্তার উন্নয়নের কাজ জনসাধারনের র্দূভোগের বস্তু হিসাবে দাড় হয়েছে। জনর্দূভোগ হওয়ার পরেও গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজলার ১ নং কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের বেঙ্গূলিয়া বাজার হতে সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ ভায়া টেংরা বাদিয়াখালী রাস্তার প্রায় ১ কোটি ৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ১১ শত মিটার রাস্তা পাকা করণে কাজ চলমান রেখার ও কাজ দায়সারা ভাবে করার অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,গত তিন দিন আগে হতে নির্মানাধীন রাস্তায় প্রাইম কোট মেরে রেখেছেন জয় এন্টার প্রাইজ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন । শনিবার রাস্তাটির কার্পেটিং এর কাজ শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এ রাস্তাটির মাঝামাঝি স্থানে রয়েছে একটি খাল এই খালের উপর দিয়ে একটি কালভাট স্থাপন করা হয়েছে ।

কালভাট টি অপরিকল্পিত ভাবে নির্মাণ করায় ব্রিজটির মুখ গিয়ে ঠেকেছে ব্যক্তিগত সম্পতির নিকটে আর এ ব্যক্তিগত সম্পতির মালিক নিজের ক্রয়কৃত সম্পতির উপর সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করায় রাস্তাটির মাঝামাঝি পড়েছে ব্যক্তিগত সম্পতির সীমানা প্রাচীর।

স্থানীয়রা বলেন , ব্রিজ কালভাটটি নির্মাণের আগে হতে ঠিকাদার ও উপজেলা প্রকৌশলী অফিসের কর্মকর্তাদের বারবার বলার পরেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সরকারী রাস্তার বাহিরে গিয়ে কালভাট টি নির্মান করার ফলে মাঝখানে এই খালটি হতে প্রায় ৪৫ মিটার রাস্তা কাজ সম্পাদন করা সম্ভব হচ্ছেনা ।

এবং ব্রিজটি উপর দিয়ে মানুষ পায়ে হেটে গেলেও কোন ভ্যান বা রিক্সা যাওয়া সম্ভব নয় ।সেখানে অন্যকোন যানবাহন যাওয়া তো দুরের কথা। এমতাবস্থায় জনসাধারণ দাবী করেন ঠিকাদার ও অফিসের লোকজন রাস্তাটির নিজেস্ব জায়গা বাহিরে গিয়ে অপরিকল্পিত ভাবে কালভাটটি নির্মাণ করায় রাস্তাটির উন্নয়নের কোটি টাকা বিফলে থেকে যাচ্ছে ।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটি উক্ত বিজ্র কালভাটের অপর পার্শ্বে কাজ এরকম রেখেই রাস্তা পাকাকরণ কাজ শেষ করার পায়তারা করছেন। স্থানীয়রা আরো দাবী করেন, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা প্রকৌশলী অফিসের কর্মকর্তাদের ভুলের খেসারত অত্র এলাকার সর্বস্তরের মানুষকে কি দিতে হবে ।

উক্ত ব্যক্তিগত সম্পতির মালিক সাইফুল ইসলামের পরিবার বলেন, আমরা ক্রয়সুত্রে কাতলি মৌজায় ২৮ নং দাগে দুইভাই মিলে ৪৫ শতাংশ জমির মালিক । আমাদের বসতবাড়ীর সামনে খালের উপর বিগত সময়ে ৪ ফিট ব্রিজ কালভাট ছিলো বর্তমানে সেটা ৮ ফিট বৃদ্ধি করে রাস্তার নিজস্ব জায়গা ছেড়ে আমাদের ব্যক্তিগত সম্পতির উপরে ঠিকাদার ও অফিসরে লোকজন রাস্তা নির্মাণের পায়তারা চালায় ।এমতাবস্থায় আমরা আমাদের সম্পতির সীমানা প্রাচীর নির্মান করলে ব্রিজের চলাচলের মুখ দুই ফিট দুরে আমাদের সীমানা প্রাচীর নির্মান করা হয়েছে। তারা আরো জানান, এই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ভুলে খেসারত আমরা কেন দিবো

এবিষয়ে অত্র ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জয় এন্টারপ্রাইজ দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদার বাবু মিয়া ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কতিথ পাটনার মিঠু মিয়া জানান, আমাদের কোন দোষ নেই !আমাদের উপজেলা অফিসের কর্মকর্তারা থেকে যেভাবে দেখে দিয়েছে আমরা সেভাবেই কাজ করে যাচ্ছি । বর্তমানে বিজ্রটির নিকট যে সমস্যা দাড়িয়েছে আমরা তা নিরসনে উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর প্রশাসকসহ সমস্যা সমাধানে চেষ্ঠা করেছি।

সমস্যার কোন সমাধান না হওয়ায় উক্ত স্থানে কাজ বাকি রেখে অন্য অংশে কাজ চলমান রয়েছে আমরা যতটুকু কাজ করবো ততটুকু কাজের বিল উত্তোলন করবো ।

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী তাহাজ্জাদ হোসেন বলেন, উক্ত রাস্তা নির্মাণের সময় ধরে এ সমস্যা সমাধানে উপজেলা চেয়ারম্যান ও পৌর প্রশাসকসহ সরেজমিনে গিয়ে কোন প্রকার ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হয়নি । আমরা যথাযথ ভাবে সমস্যাটি সমাধানের চেষ্ঠা করেছি ।

এদিকে এলজিইডি গাইবান্ধার নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান কবির জানান, বিষয়টি জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451