1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৮:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দেশে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু ব্রাজিলে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৪১ মাগুরার মহম্মদপুরে ১১ জন বিভিন্ন মামলার আসামী গ্রেফতার জলঢাকায় করোনায় ডিসিআই-আরএসসি’র উদ্যোগে কর্মহীনদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ২৬ নবেম্বর মুক্তিযুদ্ধের কামান্না দিবস এদিনে ২৭ মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন শেখ হাসিনা শক্তিশালী হলে বাংলাদেশ এগিয়ে যায়: আব্দুল আলীম বেপারী বিশ্বের এক ইঞ্চি জমিও সন্ত্রাসী-জঙ্গিদের ব্যবহার করতে দেয়া হবে না দীপ্ত টিভিতে ধারাবাহিক নাটক ‘মাশরাফি জুনিয়র‘ পৌর কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত ও অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করব ডা. মিলনের আত্মত্যাগের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে : ন্যাপ

মুঠোফোনে প্রেম করে প্রবাসীর সাড়ে ৮ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

বাগেরহাট প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৮ বার পঠিত

মুঠোফোনে প্রেম ও বিয়ে করে প্রবাসী লতিফ ফকিরের ৮ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নাজির মোল্লা ও তার মেয়ে সীমার বিরুদ্ধে। এদিকে টাকা হারিয়ে পাগল প্রায় প্রবাসী লতিফ ফকির ও তার বিধোবা মা হালিমা বেগম। হয়ত টাকা ফেরত নয়ত সীমাকে ছেলের বউ হিসেবে তার ঘরে আসার দাবি জানিয়েছেন লতিফের বৃদ্ধ মা হালিমা বেগম।

প্রতারণা শিকার কাতার প্রবাসী লতিফ ফকির বাগেরহাট মোল্লাহাট উপজেলার মৃত মোঃ জামিরের ছেলে। কাতার প্রবাসী লতিফ ফকির বলেন, ২০১৭ সালের শেষের দিকে আমার খালাতো ভাইয়ের স্ত্রী আসমা বেগমের মাধ্যমে গোপালগঞ্জ উপজেলার কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ইউনিয়নের খাগড়াবাড়ি গ্রামের নাজির মোল্লার মেয়ে সীমার সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর থেকে আমি নিয়মিত সীমার সাথে মুঠোফোনে কথা বলি।

এর মাঝে বিভিন্ন কারণ অকারণে সীমা ও তার পরিবারকে আমি কয়েক লক্ষ টাকা দেই। এক পর্যায়ে সীমার সাথে আমার বিয়ের কথা হয়। সেই অনুযায়ী সীমার বাড়িতে আমার মাসহ স্থানীয় কয়েকজন আত্মীয় ও মধ্যস্থতাকারী আসমা বেগমের উপস্থিতিতে মুঠোফোনে আমাদের বিয়ে হয়।ওই এলাকার কাজী হেদায়েত হোসেন আমাদের বিয়ে পড়ান।

বিয়ের আগে ও বিয়ের পরে সব মিলিয়ে আমি আমার স্ত্র্রী ও শশুরকে আট লক্ষ ৪৩ হাজার টাকা দিয়েছে। এর মধ্যে সাড়ে চার লক্ষ টাকা ব্যাংকের মাধ্যমে আমার শশুর নাজির মোল্লার কাছে সাড়ে চার লক্ষ টাকা পাঠিয়েছি। বিকাশের মাধ্যমে দুই লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দিয়েছি। আমার স্ত্রীকে মুঠোফোন ও আংটি বানানোর জন্য এক লক্ষ ৪৩ হাজার টাকা দিয়েছি। কিন্তু মুঠোফোনে বিয়ে হওয়ার কয়েকদিন পরেই আমার স্ত্রী সীমা আমার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

এখন সে আর আমার সাথে যোগাযোগ করে না।আমি ফোন দিলে আমাকে গালিগালাজ করে। প্রবাসে গায়ের রক্ত পানি করা টাকা আমার শশুর ও স্ত্রীকে দিয়েছি। এখন সে আমার সাথে প্রতারণা করছে। আমি টাকা ফেরত চাই, নয়ত সীমাকে চাই।

লতিফ ফকিরের বৃদ্ধ মা হালিমা বেগম বলেন, আমরা ওই বাড়িতে গিয়ে সীমার সাথে আমার ছেলে কাতার প্রবাসী লতিফ ফকিরের বিয়ে দিয়েছি।সীমা ও সীমার বাবা নাজির মোল্লাকে আমার সন্তান প্রায় সাড়ে আট লক্ষ টাকা দিয়েছে।এখন তারা আমাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করছে।

আমি আমার ছেলের টাকা ও ছেলের বউকে ফেরত চাই। প্রতারণার বিষয়টি অস্বীকার করে সীমার বাবা নাজির মোল্লা বলেন, আমার মেয়ের সাথে লতিফ ফকিরের বিয়ের কথা চলছিল। এই কথা চলাচলির সময় লতিফ আমার মেয়ের জন্য প্রায় ৪ ভরি ওজনের স্বর্ণালঙ্কার পাঠায়। পরবর্তীতে বিয়ে না হওয়ায় আমরা সেই স্বর্ণালঙ্কার ফেরত দিয়ে দিয়েছি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451