মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পর্যটনকেন্দ্রের হাতছানি : রাজাপুরের ধানসিঁড়ি খননের উর্বর পলিমাটিতে সবুজের সমারোহ সুন্দরবনে গোলপাতার কদর আগের মতো নাই কেউ কাটতে যেতে চায় না শত বছরের ঐতিহ্য ভেঙ্গে আমতলীর নারী শ্রমিকরা কাজ করছেন বোরো ধান ক্ষেতে খুলনা প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দকে ফটোজার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের শুভেচ্ছা ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি’র সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত গাবতলী ধানের শীষের পক্ষে ভোট চেয়ে গনসংযোগ করেন ছাত্রদল নেতা পলাশ গলাচিপায় এমপি শাহজাদা ও উপজেলা চেয়ারম্যান সাহিনকে সংবর্ধনা ষষ্ঠ রাউন্ডে গোয়ালন্দ দাবা ক্লাব ও পুলিশ স্টারের জয় লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এসআই আলমগীরের নামে মামলা বস্তিবাসী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবন ফিরিয়ে দিতে হবে

ড. গৌতম পাল রচিত ‘কোভিড-১৯ ও জনস্বাস্থ্য’ মূল্যবান গ্রন্থের আনুষ্ঠানিক প্রকাশ

ফারুক আহমেদ, কলকাতা থেকে :
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৪ বার পঠিত

দেখতে দেখতে ১ বছর পেরিয়ে গেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কালসীমা। গত বছর ১৭ নভেম্বর চীনের উহান প্রদেশে এই সংক্রমণের খবর প্রথম মেলে। তারপর তীব্র গতিতে তা ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে। ভারতও এর থেকে বাদ যায়নি। যার জেরে সারা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত মারা গেছেন প্রায় ১ কোটি ১৩ লক্ষ ৬৮ হাজার ৪০৪ জন। ভারতে মারা পড়েছেন, ১ লক্ষ ৩২ হাজার ১৬২ জন। আক্রান্ত প্রায় ৯০ লক্ষ। তবে আশার কথা এই মুহূর্তে এই রোগে মৃত্যুর হার কিছুটা হলেও কমের দিকে।

তবে ইউরোপে এই রোগের দ্বিতীয় ঢেউ আবার চিন্তায় ফেলেছে বিশ্ববাসীকে। এই মাহামারির এখনও পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক বা টিকা আবিষ্কার না হওয়ার ফলে চিরাচরিত ওষুধের ওপরেই নির্ভর করে এর বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করেছেন বিশ্বের প্রতিটি দেশের চিকিৎসকরা। করোনা বা কোভিড ১৯ এই রোগের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রথম পাঠ হল সচেতনতা।

আর এই সচেতনতা বাড়াতে ও মানুষকে এই রোগ সম্পর্কে সজাগ করতে এগিয়ে এসেছেন কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য বিজ্ঞানী ড. গৌতম পাল। শুক্রবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে ড. গৌতম পালের লেখা ‘কোভিড-১৯ ও জনস্বাস্থ্য’ নামক একটি গবেষণা বইয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হল।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, এসএসকেএম হাসপাতালের প্রফেসর ও ফিজিওলজি বিভাগের প্রধান ডাক্তার অর্ণব সেনগুপ্ত, কল্যাণীর গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত ডাক্তার সুশীল চন্দ্র বিশ্বাস, হোমিওপ্যাথীর বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাক্তার ডি. এন বন্দ্যোপাধ্যায়, ও বইটির প্রকাশক অরবিন্দ দাসগুপ্ত ও উদার আকাশ পত্রিকা ও প্রকাশনের সম্পাদক ফারুক আহমেদ।

উপস্থিত সকলেই একবাক্যে এই করোনা প্রেক্ষিতে বইটির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন। এই বইটির মাধ্যমে লেখক সহজ সরল ভাষায় কোভিড-১৯ রোগটির বিস্তারিত ব্যাখ্যা, প্রতিরোধ, প্রতিষেধকের পাশাপাশি কিভাবে সাধারণ মানুষ এই রোগের হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করবেন তা সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে বিজ্ঞান সাধনার পাশাপাশি সমাজ সচেতনতার যে গুরু দায়িত্ব প্রফেসর ড. গৌতম পাল নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন তারই উজ্জ্বল নিদর্শন এই ‘কোভিড-১৯ ও জনস্বাস্থ্য’ গ্রন্থটি। শুধু তাই নয় প্রাঞ্জল ভাষায় বর্ণনা করা রোগটি সম্পর্কে বিজ্ঞানের ব্যাখ্যা ছাত্রছাত্রীদের অবশ্যই পাঠযোগ্য বলে মনে করেন উপস্থিত চিকিৎসকরা।

কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ উপাচার্য গৌতম পাল এদিন বললেন, “কোভিড-১৯ একটি অভূতপূর্ব মহামারী (প্যানডেমিক) ব্যাধি। অত্যন্ত সংক্রামক হওয়ায় খুব অল্প সময়ের মধ্যে কোভিড-১৯ ব্যাধিটি গােটা বিশ্বে সংক্রামিত হয়েছে। এছাড়া ব্যাধিটি প্রাণঘাতী হওয়ায় এবং নিরাময়ে নির্দিষ্ট কোনাে প্রতিষেধক বা টীকা বিদ্যমান না থাকায় ইতােমধ্যে এই ব্যাধিতে বহু মানুষের প্রাণনাশ ঘটেছে। আশার কথা, খুব অল্প সময়ের মধ্যে কোভিড-১৯ নিরাময়ের টীকা (ভ্যাকসিন) চিকিৎসা ব্যবস্থায় প্রচলিত হবার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

নিবারণ যে কোনাে ব্যাধির নিরাময়ের শ্রেষ্ঠ পন্থা এই প্রবচনটি আমরা প্রায় সকলেই জানি। কোভিড-১৯ ব্যাধিটিকে নিবারণ করার জন্য ব্যাধিটির কারণ ও সংক্রমণের কৌশল সর্বাগ্রে জানা দরকার। এই বইটি কোভিড-১৯ ব্যাধিটির রােগতত্ত্ব ও স্বাস্থ্যসম্মত জীবনচর্যা সম্বন্ধে সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করে কোভিড-১৯ ব্যাধিটিকে নিবারণ করতে সাহায্য করবে। বইটির মাধ্যমে আমি আমার সামাজিক দায়বদ্ধতার ঋণ কিছুটা পরিশােধ করার চেষ্টা করেছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451