শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মুজিববর্ষে পত্নীতলায় বাড়ি পাচ্ছেন ১১৪টি পরিবার নিষিদ্ধ ট্রাক্টরের দখলে ঝিনাইদহে সকল রাস্তা ঘাট, অতিষ্ঠ জনজীবন! মুজিব বর্ষ মার্সেল দ্বিতীয় বিভাগ দাবা লিগ-২০২১ গাবতলী সদর পদ্মপাড়ায় ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা উদ্বোধন এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের পোস্টার টানানো হবে: ওসি মশিউর ঝিনাইদহে ট্রাক চাপায় নারীর মৃত্যু, আহত-১ ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক বিশিষ্ট ক্রীড়া অনুরাগী মাহবুব আলম মৃদুলের ইন্তেকাল সিদ্ধিরগঞ্জে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী ইমরান গ্রেফতার জয়পুরহাটে আলু ক্ষেত থেকে গ্যারেজ মিস্ত্রির লাশ উদ্ধার রাজারহাটে ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

ভাষা সৈনিকদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দেয়া সময়ের দাবী : মোস্তফা

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৩২ বার পঠিত

মুক্তিযোদ্ধাদের মত ‘ভাষা সৈনিক’দের ভাষা বীর হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি ও মর্যাদা দেয়া এখন সময়ের দাবী বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনই স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার প্রথম সোপান। একই সঙ্গে সারা বছর শহীদ মিনারের পবিত্রতা রক্ষাসহ ভাষা আন্দোলনের ঐতিহাসিক স্থানগুলো যথাযথভাবে সংরক্ষণের জন্যও সরকারের ব্যবস্থা গ্রহন করা উচিত।

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিরনায়তনে ভাষা সৈনিক মতিনের (রাষ্ট্রভাষা মতিন) ৯৪তম জন্ম ও রওশন আরা বাচ্চুর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তাদের প্রতিকৃতিতে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ’র শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভাষা সৈনিক আবদুল মতিন ও রওশন আরা বাচ্চুর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনের এত বছরও পর এবং স্বাধীনতার ৪৯ বছরেও মায়ের ভাষার অধিকার এবং সম্মান রক্ষায় যারা ভাষা আন্দোলন করেছেন তাদের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিতে না পারা রাষ্ট্র ও শাসকগোষ্টির চরম ব্যর্থতা। ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস এবং ভাষা শহীদদের অবদানকে তুলে ধরতেই তাদের স্বীকৃতি প্রয়োজন।

ন্যাপ মহাসচিব আরো বলেন, ভাষা আন্দোলনের পরিপূর্ণ ইতিহাস এখন পর্যন্ত লেখা হয়নি। বিচ্ছিন্নভাবে আছে। একটি অধিকতর পরিপূর্ণ ইতিহাস রচনায় একটি জাতীয় কমিশন করা প্রয়োজন। ভাষা আন্দোলনের ইতিহাসকে উপেক্ষা করলে জাতির মধ্যে অস্তিত্বহীনতা তৈরি হবে। সে জন্যই এর পরিপূর্ণ ইতিহাস দরকার। বিশেষ করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্যে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীর বছরের ২১ ফেব্রুয়ারির পূর্বেই ভাষা সৈনিকদের তালিকা তৈরি করে গেজেট আকারে প্রকাশ করে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দেওয়া হোক। অনেক ভাষা সৈনিক মানবেতর জীবন-যাপন করছে। অনেকে মানবেতর জীবন-যাপন করে মারা গেছেন। স্বীকৃতি-সম্মান তো দূরে থাক, রাষ্ট্র তাদের কোনো খোঁজ রাখেনি। ভাষা আন্দোলন আমাদের গৌরবের ইতিহাস হলেও রাষ্ট্রের এ দায়িত্বহীনতা অত্যন্ত দুঃখের এবং অগৌরবের। গৌরবের ইতিহাসে অগৌরব-অমর্যাদা থাকতে পারে না।

তিনি বলেন, ভাষা শহীদ কেবল ভাইদের গৌরবের ইতিহাস না, বোনদেরও গৌরবের ইতিহাস। এই ভাষা আন্দোলন করতে গিয়েই একমাস জেল খেটেছি। ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস অসাম্প্রদায়িকতার ইতিহাস। এখানে সঙ্কীর্ণতার কোনো সুযোগ নেই।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এম এ জলিল, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, গণতান্ত্রিক ঐক্যের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম, ন্যাপ ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451