বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মুজিব শতবর্ষে নতুন ঠিকানা পাচ্ছেন গাংনীসহ মেহেরপুরের ৬৩টি পরিবার মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ভূমিহীনদের ঘর নিয়ে অনিয়ম পেলে কঠোর ব্যবস্থা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিতরণে ফুলবাড়ীতে নির্বাহী অফিসারের প্রেস ব্রিফিং সৈয়দপুরে ফুটপাত থেকে কোটি টাকা চাঁদা আদায় মওলানা ভাসানীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ২২ জানুয়ারি আত্রাই রেলওয়ে প্লাটফরমে মাছের দোকান যাত্রীদের দুর্ভোগ মওলানা ভাসানী জাতির অস্তিত্বের সোপান : স্বপন কুমার সাহা বান্দরবানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিকআপ খাদে নিহত ৩ : আহত ৫ একক নাটক ‘ভাই এক প্রেমিক মাস্তান পোরশায় সাংবাদিক ইসমাইলের জন্মদিন উদযাপন

ফুলবাড়ীতে বিএনপির নেতা-কর্মিদের মাঝে ক্ষোভ বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবী

আব্দুল লতিফ, বগুড়া ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৪৮ বার পঠিত

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি কে বহিস্কার করায় ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে বিএনপির নেতা-কর্মীরা ।
নেতা-কর্মীরা বলছেন, কেন্দ্রিয় কমিটির আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহার করা না হলে তাঁরা গণপদত্যাগ করবেন বলে জানিয়েছেন।

গত ২৪ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুর স্বাক্ষরিত একপত্রে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে সভাপতির পদসহ দলীয় পদ থেকে বহিস্কার করা হয় দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যন অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতিকে। এই বহিস্কার করার ঘটনা কয়েকটি অনলাইন পোটালে প্রকাশ পাওয়ায়, ক্ষোভে ফেঁটে পড়েন উপজেলা বিএনপিসহ অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীগণ। তারা একে একে উপজেলা বিএনপির সভাপতির সাথে দেখা করে ঐক্যবদ্ধা ভাবে গণপদত্যাগের ঘোষনা দেন।

ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যন অধ্যক্ষ মাওঃ নবীউল ইসলাম বলেন, ১৯৮৯ সালে তৎকালীন বিএনপি নেতা হাজি মনসুর আলী সরকার ফুলবাড়ী ও পার্বতীপুর উপজেলা বিএনপিকে ভেঙ্গে দিয়ে জাতীয় পাটি গঠন করায়, বিএনপিতে নেতা-কর্মি শূন্য হয়ে পড়ে। এরপর অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি বিএনপির হাল ধরে, এক এক করে ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি গঠন করেছে। কোন কারন ছাড়ায় এরকম একজন জনপ্রিয় নেতাকে কেন্দ্রিয় কমিটি আত্মঘাতি সিদ্ধান্ত নিয়ে কোন কারণ ছাড়ায় বহিস্কার করলে উপজেলা বিএনপির অস্থিত্ব সঙ্কটে পড়বে। এই কারনে তিনি বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানান।

একই কথা বলেন, উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সাবে সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যন মোজাফ্ফর হোসেন চৌধুরী। উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোশারফ হোসেন বলেন যার হাতধরে নেতা-কর্মিরা ছাত্রদল থেকে বিএনপির রাজনীতি করছেন তাকেই বহিস্কার করা হলে তিনিসহ সকল নেতা-কর্মিগণ গণপদত্যাগ করবে বলে জানান।

একই ভাবে বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে গণপদত্যাগের ঘোষা দিয়েছেন, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক আবু সাঈদ, উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব ও উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি মাহবুব আলম মিলন, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক ও উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক জাকিউর রহমান চঞ্চল, উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মকলেছুর রহমান নবাব, উপজেলা সেচ্ছাসেবক দলের সাধারন সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা দেলওয়ার হোসেন লিটনসহ উপজেলা বিএনপিসহ অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মিগণ।

নেতা-কর্মিগণ বলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি একজন জনপ্রিয় নেতা, তার হাতেই ফুলবাড়ী উপজেলা বিএনপি পূর্ণগঠন হয়েছে। তাকে বহিস্কার করে এই এলাকার বিএনপির নেতা-কর্মি ও সমর্থকদের হতাশ করেছে। নেতা-কর্মিগণ বলেন অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতিকে বাদ দিলে অভিভাবক হয়ে পড়বে উপজেলা বিএনপি, এই জন্য তারা এই বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানান।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে গণপদত্যাগের ঘোষনা দিয়েছে ইউনিয়নের নেতা-কর্মিগণ। কাজিহাল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবু সাইদ সাংবাদিক কে বলেন যে সময় উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির নেতৃত্বে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে জয়লাভ করার পরিকল্পনা করছে, সেই সময় কেন্দ্রিয় কমিটির আত্মঘাতি দলকে বড় রকমের ক্ষতির মুখে ফেলেছে। একই কথা বলেন কাজিহাল ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক তছলিম উদ্দন সরকারসহ অনন্য নেতা-কর্মিগণ।

এদিকে উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতিকে কি কারনে বহিস্কার করা হয়েছে, সেই বিষয়ে সুনিদিষ্ট করে বলতে পারেনি দিনাজপুর জেলা বিএনপি। এছাড়া তাকে কোন নোটিশও প্রদান করা হয়নি। দিনাজপুর জেলা বিএনপির আহবায় সাবেক সংসদ সদস্য এজেড এম রেজওয়ানুল হক বলেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি এজন জনপ্রিয় নেতা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান। তাকে কেন বহিস্কার করা হয়েছে, সেই বিষয়ে কিছুই জানেনা দিনাজপুর জেলা বিএনপি।

বহিস্কারের বিষয়ে কোন সিদ্ধান্তই জেলা বিএনপিতে হয়নি বলে তিনি জানান। তবে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সাবেক সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান মীয়া বলেন চলমান ফুলবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে দলিয় প্রার্থীর বাহিরে উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতির ভাই মাহমুদ আলম লিটন স্বতন্ত্র প্রর্থী হিসেবে নির্বাচন করার কারনে তাকে বহিস্কার করতে পারে ,কিন্তু তিনি নিশ্চিত হতে পারেননি বিয়টি নিয়ে ।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি জানান, উপজেলা বিএনপির সিদ্ধান্ত ছাড়ায় কয়েকজন জেলা বিএনপির সদস্যর মনগড়া মতামতের উপর ভিত্তিকরে একজন জনসমর্থহীন ব্যাক্তিকে দলিয় মনোনয়ন দেয়ায়, তারা নির্বাচন কার্য্যক্রম থেকে সরে আছেন।

তিনি আরো বলেন তার ছোট ভাই বিশিষ্ট্য সমাজ সেবক ও শিল্পপতি আলহাজ্ব মাহমুদ আলম লিটন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদন্দিতা করলেও, দলীয় প্রার্থী না হওয়ায় সেই নির্বাচনের কার্য্যক্রমেও তিনি অংশ গ্রহন করেনি। অথচ মাহমুদ আলম লিটন জাতীয়তাবাদি দলের একজন সাবেক ছাত্র নেতা ও বিএনপির সহায়তাকারী বলে জানান। বহিস্কারের বিষয়ে তাকে কোন কারন দর্শানো নোটিশও করেনি কেন্দ্রিয় কমিটি।

অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি বলেন ১৯৭৯ সালে ৯ম শ্রেনীর ছাত্র থেকে ছাত্রদলের কর্মি হিসেবে রাজনীতি শুরু করেন, এরপর ছাত্রদলের সভাপতি, যুবদলের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ও পরে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। সুধু তিনিই নয় তার পরিবারের সকল সদস্যরাও কঠোর বিএনপি করেন। এর মধ্যে এই ঘটনা ঘটে যাওয়ায় ফুলবাড়ীতে বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠন এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে অনতিবিলম্বে বহিস্কার আদেশ প্রত্যাহারের দাবি জানান। তা না হলে গণহারে সবাই দল থেকে পদ্যত্যাগ করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451