বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:৫৮ অপরাহ্ন

মুণ্ডুমালা পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর গণসংযোগ

আব্দুস সবুর, তানোর প্রতিনিধি(রাজশাহী) ঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৬ বার পঠিত

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালা পৌরসভায় স্বতন্ত্রপ্রার্থী সাইদুর রহমান গণসংযোগ করেছেন। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মুণ্ডুমালা বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারন জনগণের মাঝে গণসংযোগ করেন জগ প্রতীকের প্রার্থী সাইদুর রহমান।গত ১১ জানুয়ারি সোমবার প্রতীক বরাদ্দের পর পরদিন মঙ্গলবার কাকডাকা ভোর থেকে প্রার্থী সাইদুর রহমান প্রথমদিন বাজারের ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সবার সাথে মতবিনিময় ও জগ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করেন।

এদিকে পৌর এলাকাজুড়ে তিন মেয়র প্রার্থী ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর এবং সাধারন কাউন্সিলরদের পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে গেছে হাট বাজার গ্রামের মোড়ে মোড়ে চায়ের দোকানেও। এবারে পৌরসভায় তিনজন মেয়র প্রার্থী প্রতিদন্দিতা করছেন। তাঁরা হলেন ধানের শীষের প্রার্থী ফিরোজ কবির, নৌকা মনোনীত প্রার্থী আমির হোসেন আমিন এবং স্বতন্ত্র জগ প্রতীকের প্রার্থী সাইদুর রহমান।

এছাড়াও সংরক্ষিত এবং সাধারন কাউন্সিলর ৪৫জন প্রতিদন্দিতা করছেন। প্রচার প্রচারণা প্রথম দিনেই জমজমাট ভাবে চালিয়েছেন প্রার্থীরা। মঙ্গলবার দুপুর ২টার পর থেকে মাইকে গানের শুরেশুরে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন প্রার্থীরা। এই নির্বাচনে তিনজন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে জগ ও নৌকা প্রতীকের প্রার্থী প্রথমবারের মত নির্বাচন করছেন এবং ধানের শীষের প্রার্থী ২০১৬ সালে নৌকার প্রার্থী বর্তমান মেয়র উপজেলা আ”লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী জয়লাভ করেছিলেন। অবশ্য এবারে তিনি নির্বাচন করছেননা।

জানা গেছে, তফসীল অনুযায়ী আগামী ৩০ শে জানুয়ারি মুণ্ডুমালা পৌরসভায় ভোটগ্রহণ হবে। এপৌরসভায় ২০০৪ সালের প্রথম নির্বাচনে তৎকালীন উপজেলা বিএনপির সভাপতি হেবিওয়েট নেতা শীষ মোহাম্মাদ, ২০১১ সালের নির্বাচনে চমক লাগিয়ে উপজেলা আ”লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও দলীয় প্রতীকে ২০১৬ সালেও নৌকার প্রার্থী বিজয় লাভ করেন। তবে এবারের নির্বাচন এক ভিন্যরুপ ধারন করেছে। কারন হিসেবে একাধিক ভোটারেরা জানান উপজেলার মধ্যে শিক্ষিত ঐতিহ্যবাহী এলাকা হিসেবে পরিচিত মুণ্ডুমালা পৌরসভা।

এছাড়াও মহামারী করোনাভাইরাসের সময় গত বছরের মার্চ মাস থেকে জুন মাস পর্যন্ত পুরোদেশ লকডাউনে পড়ে। চরম দিশেহারা হয়ে পড়েন সকল শ্রেণী পেশার জনসাধারণ। এসময় মুণ্ডুমালা পৌরসভার নয় ওয়ার্ডে দল মত নির্বিশেষে ত্রাতার ভুমিকায় আসেন সাইদুর রহমান। পুরো লকডাউনের সময় নিজ তহবিল থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করে দিনরাত মানুষের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌছে দেন।

এমনকি ঈদুল ফিতরেও একই ভুমিকা পালন করেন ক্ষমতাসীন দলের সাবেক এই নেতা। যার কারনে মুণ্ডুমালা বাজারে দলীয় কার্যালয়কটি মানবতার ঘর হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।শুধু পৌরবাসির মাঝেই না এই স্বতন্ত্র প্রার্থী রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খাইরুজ্জামান লিটনের তহবিলে নগদ ৫০ হাজার টাকা অনুদান দেন তিনি।

যার ফলে মানুষের কঠিন সময়ে পাশে দাড়িয়ে পৌরবাসির হৃদয়ের স্পন্দন হয়ে উঠেন বিশিষ্ট ঠিকাদার জগ প্রতীকের এই প্রার্থী। পৌরবাসিরাও আসা করেছিলেন এবার দলীয় প্রতীক নৌকা দেয়া হবে জনতার নেতা সাইদুর রহমানকে। কিন্তু রহস্যজনক কারনে নৌকা প্রতীক পান একেবারেই অক্ষর জ্ঞানহীন কাউন্সিলর আমির হোসেন আমিন। ভোটারদের চাপেই মেয়র পদে প্রতিদন্দিতা করছেন সাইদুর রহমান।

নাম প্রকাশ না করে বেশ কিছু ক্ষমতাসীন দলের নেতারা জানান সাইদুরকে নৌকা প্রতীক দিলে মেয়রের চেয়ারের কোন চিন্তাই ছিলনা। তারপরেই এখন পর্যন্ত জনপ্রিয়তার তুঙ্গে রয়েছেন সাইদুর রহমান। তাঁর সাথেই লড়াই করে জিততে হবে। জগ প্রতীকের প্রার্থী সাইদুর রহমান জানান ফেয়ার নির্বাচন হলে মহান আল্লাহর রহমতে পৌরবাসি আমাকেই বিজয় করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।ইতিপূর্বেই দলের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন এই প্রার্থী বলেও জানা গেছে।গণসংযোগের সময় প্রার্থীর সাথে পৌরসভার নাগরিকরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451