বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দিনাজপুরের বিরামপুরে সরকারি জায়গা দখল করে দোকান ঘর নির্মান বন্দরে তিতাসের অধিগ্রহনকৃত জমি রক্ষা পেলনা মাসুম চেয়ারম্যানের হাত থেকে অপরিকল্পিতভাবে ভূমি অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করায় অবরূদ্ধ পরিবারটি পীরগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে অধ্যক্ষ খলিলের মতবিনিময় নওগাঁর মহাদেবপুরে গলা পায়ের রগ কাটা মানসিক ভারসাম্যহীন এক ব্যাক্তিকে উদ্ধার আলোচিত যুবলীগ নেতা মিলনকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলায় চারজনের আদালতে আত্মসমার্পণ বিশ্বম্ভরপুরে চেয়ারম্যান রনজিতের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ফুলবাড়ীতে ফেন্সিডিল-গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক শোকাহত মতিউরের পরিবারের পাশে চেয়ারম্যান প্রার্থী খলিল দিনাজপুরের হাকিমপুর নর্ব নিবাচিত পৌর মেয়রকে গণ সংর্বধনা

পোরশায় ১৪৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শহীদ মিনার আছে মাত্র ৭টিতে

ডিএম রাশেদ, পোরশা প্রতিনিধি (নওগাঁ) :
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২৪ বার পঠিত

নওগাঁর পোরশা উপজেলার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই স্থায়ী কোন শহীদ মিনার। ২১শে ফেব্রুয়ারী এলেই কোন কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্থায়ী কোন শহীদ মিনার না থাকায় কলাগাছ কিংবা প্রতিষ্ঠানের টেবিল দিয়ে অস্থায়ী ভাবে শহীদ মিনার তৈরি করে পালন করা হয় দিনটি।

যার ফলে প্রত্যন্ত এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র ছাত্রীরা শহীদ দিবস সম্পর্কে অজ্ঞই থেকে যায়। তাছাড়া দিবসটি পালনের কোন তাৎপর্যই ফুটে ওঠে না। এতে শিক্ষার্থীরা একুশের চেতনা, মূল্যবোধ থেকে উপেক্ষিত হচ্ছে।

জানা গেছে, পোরশা উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৮৭টি। ৮৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে কোন প্রাথমিক বিদ্যালয়েই নেই শহীদ মিনার। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ২৬টি। এর মধ্যে শহীদ মিনার রয়েছে মাত্র ৪টি বিদ্যালয়ে।

আলিম, ফাজিল ও দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে মোট ২৬টি। এর মধ্যে শহীদ মিনার রয়েছে মাত্র ১টি মাদ্রাসায়। ৪টি কলেজের মধ্যে শহীদ মিনার রয়েছে ২টি কলেজে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ওয়াজেদ আলী মৃধা জানান, ২৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে শহীদ মিনার রয়েছে কড়িদহ উচ্চ বিদ্যালয়, শিশা উচ্চ বিদ্যালয়, নিস্কিনপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও বড়গ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে। ২৬টি মাদ্রাসার মধ্যে শহীদ মিনার রয়েছে শুধুমাত্র মেদা মাদ্রাসায়। ৪টি কলেজের মধ্যে পোরশা সরকারী কলেজ ও গাঙ্গুরিয়া ডিগ্রী কলেজে ১টি করে রয়েছে শহীদ মিনার।

উপজেলা সহকারী প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার ওয়ালিউল ইসলাম জানান, পোরশা উপজেলায় মোট প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৮৭টি হলেও কোনটিতেই নেই শহীদ মিনার।

যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নেই ঐসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠনে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাসা দিবসটি যথাযথভাবে পালন করা হয় না বলেই জানাযায়।

যথাযোগ্য মর্যাদায় আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসটি উদযাপনের জন্য দেশের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশনা দেওয়া থাকলেও ঐসকল প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ না থাকায় বায়ান্নর পর থেকে আজ পর্যন্ত অনেক স্কুল মাদ্রাসাগুলোতে ২১শে ফেব্রুয়ারী পালন করা হচ্ছে না।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451