মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দেশের ইতিহাসে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ১১২ জন বাগেরহাটের মোল্লাহাটে হেফাজত কর্মীদের হামলায় ওসিসহ ৭ পুলিশ সদস্য আহত দৈনিক জনতার সম্পাদকের স্ত্রী’র মৃত্যুতে ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের শোক মুকসুদপুরে মঞ্জুরুল হক লাভলুর মাস্ক বিতরণ ডোমারে কৃষকলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থানে আত্রাই থানা পুলিশ প্রতিদিন ৫০ পরিবার পাচ্ছে “পাশে আছি,পাশে থাকবো”সংগঠনের ইফতার কালিয়াকৈরে হেফাজত-পুলিশ সংঘর্ষ ককটেল বিস্ফোরণ-গুলি, আমীরসহ তিনজন গ্রেপ্তার লকডাউনে: হিলি স্থলবন্দরে অস্থির চালের বাজার, কেজিতে বেড়েছে ৩-৪ টাকা আত্রাইয়ে বোরো ধানে ব্লাস্ট রোগের আক্রমণ কৃষক দিশেহারা

ঐ দেখা যায় তালগাছ ঐ আমাদের গা

সরওয়ার জাহান, ভ্রাম্মমান প্রতিনিধি পীরগঞ্জ (রংপুর) ঃ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১
  • ৮৬ বার পঠিত

আকাশের দিকে উর্ধ্বগামী পাম গোত্রের অন্যতম লম্বা গাছের নাম- তাল গাছ। বৈজ্ঞানিক নাম Borassus flabellifer.এ গাছের ফলের নাম তাল। যা ভারতীয় উপমহাদেশে গ্রীস্মকালীন ফল। সাধারন্ত এ গাছের কোন ডাল-পালা হয় না। ঠাঁয় দাঁড়িয়ে লম্বা হয়। আর তাই বিশ্ব কবি তার রচিত‘তালগাছ’নামক কবিতায় গাছটির বর্ননা দিয়েছেন এভাবে-“তালগাছ এক পায়ে দাঁড়িয়ে, সব গাছ ছাড়িয়ে উঁকি মারে আকাশে। মনে সাধ,কালো মেঘ ফুঁড়ে যায়,একেবারে উড়ে যায়; কোথা পাবে পাখা সে?”। সেই তালগাছ সময়ের বিবর্তনে উজাড় হয়ে যাচ্ছে।

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় পরিবেশ বান্ধব, বজ্রপাত নিরোধক তালগাছ এক সময় গ্রামীন সড়কের শোভা বর্ধন করত। সে সময় প্রায় বাড়িতে তাল গাছ দেখা যেতো। বিশেষ করে বন-জঙ্গল আর বাঁশ বাগানসহ পরিত্যাক্ত জায়গায় তাল গাছ বড় হ’ত অযতেœ ,অবহেলায়। গ্রামের অবস্থাপন্ন গৃহস্থদের বাড়ির ভিটেয় তাল গাছ থাকতো। তালগাছে বাসা বাধতো কানা বগীরা।

এমন কি গ্রামের নিশানা ঠিক করা হতো তালগাছ দেখে। তাইতো কবি লিখেছেন-‘ঐ দেখা যায় তালগাছ, ঐ আমাদের গাঁ,ঐ খানেতে বসত করে কাঁনা বগীর ছা।’ সময়ের প্রয়োজনে গ্রামীণ বন-জঙ্গল, বাঁশবাগান গুলো কেটে কৃষি জমিতে পরিনত করার পাশা-পাশি জনবসতি গড়ে ওঠায় এখন আগের মতো তাল গাছ চোখে পড়েনা । তালগাছের মতো নিরাপদ আশ্রয় না থাকায় কানা বগীরাও হারিয়ে যেতে বসেছে।

গাছটির কান্ড দিয়ে নৌকা, বাড়ীর কাঁচা ও আধাপাকা ঘরের ছাদ, বর্গা ইত্যাদি তৈরী করা যায়।পাতা দিয়ে ঘরের ছাউনি, গরমের সময়ে হাতপাখা, চাটাই, মাদুরসহ নানান ধরনের সামগ্রী তৈরী হয়। তালের পিঠা, আঁটি, রস, শাস এসবই মানুষের নিকট খুব মজাদার সুস্বাদু খাবার। তাল থেকে খেজুর গাছের মতো রস নিয়ে পাটালি গুড়, মিছরি, ইত্যাদি খাদ্য তৈরী করা যায়।

চিকিৎসক ও পুষ্টি বিজ্ঞানীদের মতে-অ্যান্টি অক্সিজেন ও এ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান ছাড়াও তালফলে ভিটামিন এ,বি ও সি, জিংক,পটাসিয়াম, আয়রন,ক্যালসিয়ামসহ অন্যান্য খনিজ উপাদান রয়েছে। তালের ঘন রসে রয়েছে বহুপ্রকার ঔষধী গুন। পেটের পীড়া নিরাময়ে, এসিডিটি, সব বয়সের মানুষের অপুষ্টি প্রতিরোধে এবং ক্রিমি নাশকে তালের রস কাজ করে।

এ জন্য তালগাছকে উপকারী গাছও বলা হয়ে থাকে। এলাকার প্রবীন ব্যক্তিরা জানায়, গ্রামের মানুষ আগের দিনে তালের পিঠা বিনিময়ের রেওয়াজ ছিলো আতœীয়দের মধ্যে । তাল গাছ না থাকায় সে রেওয়াজটিও উঠে গেছে । এদিকে তালগাছের অতীত ঐতিহ্য ফিরে আনতে গত ২০১৭ ইং সালের অক্টোবর মাসে উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে ২৭ কি ঃ মিটার গ্রামীণ সড়কের ধারে ১৭ হাজারের অধিক তাল বীজ রোপন করা হলেও তাল গাছ আর হয়ে ওঠেনি।

কিন্তু এর আগ থেকেই উপজেলার চতরা-ধাপেরহাট সড়ক ,কাবিলপুর ইউনিয়নের ৩/৪টি গ্রামীণ সড়কের ধারে ও জমির আইলে এবং বড়দরগাহ- আনন্দনগর সড়কের ত্রিমোহনী ব্রীজ থেকে খয়েরবাড়ী বাজার পর্যন্ত সড়কটির দু’ধারে সারি-সারি তাল গাছের মনোরম দৃশ্য নজর কাড়ে।

বেশ কয়েক বছর আগে মদনখালী ইউপির জনৈক একজন সাবেক মেম্বর বড়দরগাহ আনন্দ নগর সড়কের ত্রিমোহনী থেকে খয়েরবাড়ীর সন্নিকট পর্যন্ত সড়কসহ তার ওয়ার্ডের আরও ২টি গ্রামীণ সড়কে তালগাছ রোপন ও পরিচর্যা করে ছিলেন । তার রোপতি তালগাছ গুলো এখন ঠাঁয় দাড়িয়ে ওই মেম্বরের কৃতিত্বের সাক্ষ্য বহন করে আসছে আজও।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451