1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

তানোরে সরকারি গাছ নিধনের অভিযোগ

আব্দুস সবুর, তানোর প্রতিনিধি(রাজশাহী) ঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৮ মে, ২০২০
  • ২৯ বার পঠিত

রাজশাহীর তানোরে সরকারি খাস খতিয়ান ভুক্ত পুকুর পাড়ের গাছ নিধনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। চলতি মাসের ১৩মে বুধবার সকালের দিকে উপজেলার পাচন্দর ইউপি এলাকার বিনোদপুরগ্রামে ঘটে গাছ কাটার ঘটনাটি। এঘটনায় বিনোদপুরগ্রামের মৃত তছির উদ্দিনের পুত্র মোসলেম উদ্দিন বাদী হয়ে তিন জনকে বিবাদী করে গত শনিবার থানায় এবং পরদিন রোববার ইউএনওর দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বিবাদীরা হল বিনোদপুরগ্রামের গাছ খেকো মৃত পালু শেখের পুত্র মাহাবুর, লায়েব আলীর পুত্র ইনছান আলী এবং মৃত নইমদ্দিনের পুত্র অছিমুদ্দিন। অভিযোগের বিষয়টি জানতে পেরে মোসলেমকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করছেন। গাছ কাটা এবং অভিযোগের সঠিক তদন্ত করে তাদের কে আইনের আওতায় না আনলে অভিযোগ কারীর বসবাস করাই দুরহ ব্যাপার হয়ে পড়বে বলে আশঙ্কা করেন মোসলেম।

অভিযোগে উল্লেখ উপজেলার পাচন্দর ইউপির ৯৬ নং বিনোদপুর মৌজার অন্তর্গত, যার খতিয়ান নম্বর ১, ২৮ ও ৮৬, দাগ আরএস ৬৪১, রকম পুকুর। এর মধ্যে ব্যাক্তি মালিকানাধীন পুকুরের কিছু অংশ মোসলেম ক্রয় করেন । এঅবস্থায় করোনাভাইরাসের সুযোগে বিনোদপুরগ্রামের মাহাবুর ও ইনছান চলতি মাসের ১৩মে বুধবার সকালের দিকে সরকারি খাস জায়গায় থাকা গাছ নিধন করা শুরু করেন।এসময় গাছ কাটা দেখতে পেয়ে মোসলেম নিষেধ করলে তাকে মাহাবুর ও ইনছান অকাথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে নানা ধরনের হুমকি দেন। মোসলেম জানান কয়েক বার মেমে গাছগুলো খাস জায়গায় পড়েছে, আমি নিষেধ করতেই আমাকে নানা ভাবে গালমন্দসহ হুমকি দেন। আমি বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানকে বলি তিনি আমাকে ইউপি সদস্য শহিদুলের সাথে কথা বলতে বলেন। আমি তাকেও বলি কিন্তু কোন লাভ হয়নি।

তাঁরা একটি বিশাল আকারের তালগাছ কেটেছে এবং আম গাছের অর্ধেক কেটে রেখে দিয়েছে। এঘটনার জেরে গত শুক্রবার সকালের দিকে হঠাৎ বিনোদপুরগ্রামের অছিমুদ্দিন আমার গলায় ধান কাটা কাচি ধরে বলে ওরা গাছ কাটলে তোর কিসের সমস্যা বেশি কথা বললে গলা নামিয়ে দিব। গাছ খেকো মাহাবুর জানান শুধুমাত্র তাল গাছ কাটা হয়েছে এবং আম গাছের অর্ধেক কাটা পড়েছে। গাছ কাটা ব্যাক্তি ইনছান জানান আমার শ্বশুরের পৈত্রিক জায়গার উপরে গাছ এজন্য কাটা হয়েছে, অনেক গাছ কাটা পড়েনি, চেয়ারম্যান মেম্বার নিষেধ করেছে। আপনাদের পৈত্রিক জায়গায় গাছ তাঁরা কেন নিষেধ করবে জানতে চাইলে তিনি জানান মোসলেম ঝামেলা পাকিয়েছে এজন্য বসে সমাধান করার পর গাছ কাটা হবে।

আর মোসলেমের ব্যবস্থা অবশ্যই করা হবে বলেও দম্ভক্তি প্রকাশ করেন। ইউপি সদস্য শহিদুল জানান চেয়ারম্যান ঘটনা জানার পর বিষয়টি দেখতে বলেন, আমি তাদের গাছ কাটতে নিষেধ করেছি। ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান এসব ঘটনা আমার অজানা।

থানার ওসি রাকিবুল হাসান জানান গাছ কাটার অভিযোগ আমার হাতে এসে আসেনি। এলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইউএনও সুশান্ত কুমার মাহাতো জানান অভিযোগ আমার হাতে আসেনি। এখন করোনা নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছি, তবে হাতে অভিযোগের কপি পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451