1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন

নাচোলের গম সিন্ডিকেটে তানোর খাদ্য গুদামে

আব্দুস সবুর, তানোর প্রতিনিধি(রাজশাহী) ঃ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৩ জুন, ২০২০
  • ৩৫ বার পঠিত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সুযোগে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে নাচোল উপজেলার নিম্মমানের ১০ মেঃ টন গম তানোর পৌর সদর গোলাপাড়াবাজারে অবস্থিত খাদ্য গুদামে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ছুটির দিন ৩০ মে শনিবার দুপুরের পরপর দুটি ট্রলিতে করে আসে এই গম বলেও একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেছে।

যেন কোনভাবেই থামছেনা সদরের এই গুদামের সিন্ডিকেট। এমনকি ৩১ মে উপজেলা চত্বরে কামারগাঁ ইউপি এলাকার কৃষক দলের এক নেতার কাছে একাধিক কৃষি কার্ড ব্যাগে দেখে এক ছাত্রলীগ নেতা ধাক্কা দিয়ে কেড়ে নেয় বলেও পরিষদের একাধিক ব্যাক্তি জানান।

এসব সিন্ডিকেট প্রকাশ্যে হলেও নির্বিকার অবস্থায় কর্তৃপক্ষ। কারন তারাই এই সিন্ডিকেটের সাথে পরোক্ষ ভাবে জড়িত। গত ৩১ মে রোববার দুপুরের পর উপজেলা খাদ্য অফিসে আসেন কর্মকর্তা আলাওউল। তিনি আসার সঙ্গে সঙ্গে সিন্ডিকেট চক্রের সদস্য গোল্লাপাড়াগ্রামের পংকজ হলদারও প্রবেশ করেন ।

জানা গেছে গত ৩০ মে শনিবার দুপুরের সময় একটি ট্রলিতে করে বস্তায় খাদ্য অধিদপ্তর লিখা গমের বস্তা রাস্তায় পড়ে যায়। ট্রলিতে শুধু জাহাঙ্গীর নামের অপ্রাপ্ত বয়সের চালক ছিলেন। তিনিই জানান নাচোল থেকে গোল্লাপাড়া খাদ্য গুদামে যাবে গম। এই ট্রলিতে ৫০কেজির ১০০ বস্তা গাম আছে। আরেকটি ট্রলি আসছে সেটাতেও ১০০ বস্তা গম আছে । নাচোলের তারেক ভায়ের আড়ত থেকে আসছে গম।

তারেকের মোবাইল নম্বরে ফোন দিয়ে ক্রেতা সেজে গম কিনতে চাইলে তিনি নাচোলে যেতে বলেন এবং এক প্রকার বাধ্য হয়েই বলে ফেলেন গমগুলো উত্তমের। তবে উত্তমের মোবাইলে ফোন দিয়ে গমের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করে জানান আমি খামারের হাস দেখছি বলে এড়িয়ে যান।
সিন্ডিকেটের মুলহোতা হিসেবে পরিচিত গোল্লাপাড়া গুদাম কর্মকর্তা ওসিএলএসডি তাকেরুজ্জামান গমের বিষয়ে স্বীকার করে জানান গুদামে কিভাবে ব্যবসা হয় সবার জানা আছে। যদি একটু আদটু অনিয়ম না করব তাহলে কর্তৃপক্ষকে কিভাবে তুষ্ট করব।

এসব নিয়ে লিখালেখি করে শুধু আক্রোশ তৈরি করা, তাঁর চেয়ে আর বাকি জনের মত সমন্বয় করাই ভালো।তিনি আরো বলেন কৃষকরা গম দিচ্ছেন না, সেই কার্ড কিছু টাকা দিয়ে কিনে গম দিচ্ছেন। যার ফলে কৃষকও কিছু টাকা পাচ্চে গমও সংগ্রহ হচ্ছে। উভয়ের স্বার্থ রক্ষা হচ্ছে।

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে একজন কর্মকর্তার মুখে এমন দাপটে কথা সরকারের সুনাম কতটা বজায় থাকে সেটাই বড় প্রশ্ন। প্রকৃত কৃষকদের দাবি আমরা গম নিয়ে গেলে আদ্রতা নেই আরো শোকাতে হবে। অথচ এসব গম নিম্মমানের হলেও কোন সমস্যা নাই।

উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা(টিসিফুড) আলওউল কবির জানান নাচোল থেকে গম আসছে এবিষয়ে আমার জানা নেই। তবে যদি এমন হয়ে থাকে তাহলে সমন্বয় করে চলতে হবে। তারপরও বিষয়টি নিয়ে গুদাম কর্মকর্তার সাথে কথা বলে দেখছি। তিনি অবশ্য দুর্নীতি মামলার আসামী।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451