1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জায়মাকে শেখ হাসিনার প্রতিদ্বন্দ্বী বললেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী হাকিমপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী নির্বাচন সামজ-সীমার কাঁচ ভাঙা আয়না গানের মিউজিক ভিডিও জয়পুরহাটে এন্টিজেন করোনা টেস্ট শুরু নভেম্বর মাসের সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৩৯ জন, আহত ৬৮২ জন বিজিবিকে ত্রিমাত্রিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী ঝিনাইদহ যুবলীগের আয়োজনে শেখ কামালের ৮১ তম জন্মদিন পালিত ফুলবাড়ী সুজাপুর গ্রামে দূর্বত্তরা ৫০ হাজার টাকার বাগান বাড়ির ক্ষতি করে ঝিনাইদহে ইশা ছাত্র আন্দোলনের ইউনিয়ন প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্ঠিত সিনেমার সুটিংয়ে ব্যবহৃত আগুনে রেলওয়ে আই ডব্লিউ অফিসে অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই

করোনাভাইরাসে মোটা মানুষদের প্রাণহানির ঝুঁকি বেশি

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১২ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৯৩ বার পঠিত

অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতা— বর্তমানে বেশির ভাগ মানুষেরই চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতার কারণে শরীরে একাধিক রোগ-ব্যাধি বাসা বাঁধে।

ভাবছেন, করোনা আতঙ্কের আহবে হঠাৎ আবার অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতা নিয়ে মাথা ঘামানোর কী হল! কারণ হল মার্কিন গবেষকদের দাবি, অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতার জন্যই আমেরিকায় করোনাভাইরাস মহামারির আকার নিয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা আর ভয়াবহতায় চিন, ইতালি, স্পেনকেও পেছনে ফেলে দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

গবেষকদের দাবি, যাদের ইগও ২৫ থেকে ৪০ বা তার বেশি, তাঁদের মধ্যেই করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। ইগও কী? আদর্শ ওজন নির্ণয়ের পদ্ধতিতে একজন ব্যক্তির ওজন কিলোগ্রামে মাপা হয় এবং উচ্চতা মিটারে মাপা হয়। ওজনকে উচ্চতার বর্গফল দিয়ে ভাগ করা হয়। এই ভাগফলকেই বিএমআই (ইগও) বলা হয়। বিএমআই ১৮ থেকে ২৪-এর মধ্যে হলে তা স্বাভাবিক বলে মনে করা হয়।

‘সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন’-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৩৫ শতাংশ থেকে ৪০ শতাংশ নাগরিক স্থূলতার শীকার। সম্প্রতি একটি পরিসংখ্যান সামনে এসেছে। এই পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আমেরিকায় এ পর্যন্ত যত জন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তার মধ্যে প্রায় ৬৪ শতাংশের বিএমআই (ইগও) ২৫ থেকে ৪০। মোট আক্রান্তের ৭ শতাংশের অবস্থা সঙ্কটজনক যাঁদের বিএমআই (ইগও) ৪০-এরও বেশি।

তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হল, আমেরিকার থেকে শিক্ষা নিয়ে নজর দিতে হবে শরীরের বাড়তি মেদ ঝরানোর বিষয়ে নজর দিতে হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা সংক্রমণের ফলে অতিরিক্ত মোটা মানুষদের প্রাণহানির ঝুঁকি বেশি। এর পিছনে কতগুলি কারণ রয়েছে। আসুন সেগুলি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক…

১) স্থূলতার কারণে এমনিতেই দীর্ঘস্থায়ী কিছু রোগ শরীরে বাসা বাঁধে। এই কারণে তাঁদের সহজেই থাবা বসাতে পারে করোনাভাইরাস।

২) অতিরিক্ত ওজন আর স্থূলতায় ভুগছেন যে সমস্ত ব্যক্তি, তাঁদের রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতাও অনেক কম হয়। ফলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও বেশি।

৩) অধিকাংশ মোটা মানুষেরই ডায়াবেটিস, কিডনি, হার্ট, উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা আগে থেকেই থাকে। আর এই ধরনের দীর্ঘস্থায়ী ব্যাধির উপস্থিতিতে আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ।

৪) ওজন বেশি হলে ফুসফুসের উপর অতিরিক্ত চাপ পড়ে আর করোনাভাইরাস যেহেতু ফুসফুসকেই সবার আগে আক্রমণ করে, তাই মোটা মানুষের ক্ষেত্রে ঝুঁকি কয়েক গুণ বেড়ে যায়।

সমীক্ষা বলছে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁদের মধ্যে অধিকাংশের শরীরে ডায়াবেটিস, কিডনির সমস্যা, হার্ট, ওবিসিটি, উচ্চ রক্তচাপের মতো শারীরিক সমস্যা আগে থেকেই ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451