1. gnewsbd24@gmail.com : admi2019 :
শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:০০ অপরাহ্ন

ফুলবাড়ীতে স্বাস্থ্য বিধি নামেনে চলছে জনসমাগম, প্রশাসন নিরব

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি (দিনাজপুর ) :
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ জুন, ২০২০
  • ৩১ বার পঠিত

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে স্বাস্থ্য বিধি নামেনে চলছে জন সমাগম, স্থানীয় প্রশাসন নিরব ভূমিকায়। নোবেল করোনা ভাইরাস এর শুরু থেকে সারা দেশে লক ডাউন ঘোষনা হলেও হঠাৎ করে সরকার পর্যাক্রমে লকডাউন শিথিল করেন। গত ০৩ মাস ধরে করোনা ভাইরাস সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ায় এলাকায় ভিত্তিক লকডাউন ঘোষনা করেন সরকার।

এর মধ্যে ভয়াবহ অবস্থা বিরাজ করায় ফুলবাড়ীর প্রশাসন জনসমাগম থেকে বিরত থাকার জন্য ফুলবাড়ী পৌর বাজার কে ফুলবাড়ী সরকারী কলেজ মাঠে আনেন। মাছ, মাংস ও তরিতরকারি বাজার সুজাপুর সরকারী হাইস্কুল মাঠে ও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। কিন্তু হঠাৎ করে হ্ঠা-বাজার গুলি আবারও পূর্বের স্থানে ফিরে যায়। প্রতিদিন এই বাজার গুলিতে লোকজনের ব্যাপক সমাগম ঘটছে। দূরত্ব বজায় রেখে কোন দোকান মালিক পণ্য বিক্রয় করছেনা। গাদাদাদি করে সাধারণ জনগণ দোকান থেকে পণ্য ক্রয় করছে। ব্যাংক গুলিতেও একই অবস্থা বিরাজ করছে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ফুলবাড়ী শহরে হাজার হাজার লোকের জনসমাগম হচ্ছে।

অফিস আদালত, খাবার দোকান সহ বিভিন্ন ধরনের দোকান পাঠ খোলা রয়েছে, সেখানে রয়েছে লোকজনের সমাগম। ফুলবাড়ীর প্রশাসন বিকেল ৪টার পর ফুলবাড়ীর কিছু দোকানে প্রতিদিনের ন্যায় অভিযান চালান এবং মাঝে মধ্যে জরিমানা করেন। অভিযোগ উঠেছে ফুলবাড়ী পৌর বাজারের ডুঙ্গির হোটেল, ষ্টেশন রোডের হোটেল রেস্তোরা , ঢাকা মোড়ের হোটেল রেস্তোরা ও বিভিন্ন চায়ের দোকান খোলা থাকলেও সেখানে প্রাশাসন অভিযান দেখা যায় না। করোনা ভাইরাস বিকেল ৪ টার পরে কি সর্বস্তরে ছড়িয়ে পড়ে, নাকি সারা দিনে ছড়াছে? সকাল থেকে ৩টা পর্যন্ত ফুলবাড়ীর দৃশ্য দেখে মনে হয় করোনা ভাইরাস মুক্ত হয়েছে। ফুলবাড়ীকে গ্রীনজোন ঘোষনা করা হয়েছে।

তাহলে বিকেল ৪টার পর ফুলবাড়ী উর্ব্বশী সিনেমা হলের সামনে শুধু আকাশ ষ্টোর এর মালিক শফিকুল ইসলাম এর দোকানের উপর শুধু প্রশাসনের এ নেক নজর কেন আর কোথাও নয় কেন? গত ১৫ দিন আগে তার দোকান বন্ধ থাকার সত্ত্বেও ফুলবাড়ীর প্রশাসন তার জরিমানা করেন ৫ হাজার টাকা। তার ঠিক কয়েক দিনের মধ্যে আবারও দোকান বন্ধ করার জন্য সতর্ক করা হয়। সবার দোকান খোলা থাকলেও একটি দোকানের উপরে প্রশাসনের এই দৃষ্টি কেন? কিছু ভুই ফোড় হলুদ সাংবাদিক প্রশাসনকে উল্টাপাল্টা তথ্য দিয়ে প্রশাসনকে ভুল বুঝিয়ে এসব দোকানের মালিকের ক্ষতিসাধন করছে।

ফুলবাড়ী উপজেলা প্রাশাসনের নিকট, দোকান মালিক সমিতি, হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন, রিকশা শ্রমিক ইউনিয়ন,ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন করোনা ভাইরাসের কারণে সাহায্যের জন্য তালিকা জমা দিলেও অদ্যবদি আজ পর্যন্ত ত্রাণের একটি দানাও তাদের কাছে পৌছেনি। কিন্তু তাদের পরিবার গুলি বাঁচাতে সামান্য পন্য নিয়ে দোকান খুললেই তাদের দোকান বন্ধ করার হুমকি ধুমকি দেওয়া হয়। তারা কি করে তাদের পরিবারকে বাঁচবে? এসব দেখবে কে? দেখার দায়িত্ব কার জনগণের না কি প্রশাসনের?

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451