ঢাকা ০১:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩, ৯ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চীনের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে পুরো বিশ্ব

চীনের করোনা পরিস্থিতি এখন লাগাম ছাড়া। সংক্রমণ ও মৃত্যু ব্যাপকহারে বেড়ে যাওয়ার আশংকা করছেন চিকিৎসকরা। এদিকে, সঠিক তথ্য না পাওয়ায় চীনের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে পুরো বিশ্ব। 

চীনে ক্রমেই করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। ধারণ করছে ভয়াবহ আকার। এখন পর্যন্তও সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ কিছু করতে পারেনি চীন।
দেশটির এক সমীক্ষা রিপোর্ট বলছে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে দৈনিক সংক্রমণ ১০ লাখে পৌঁছাবে। হাসপাতালে এখনই উপচে পড়া ভিড়, যা আরও দ্রুত বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

তবে এ মুহূর্তে দেশটির সঠিক পরিসংখ্যান প্রকাশ বন্ধ রয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, এই পরিস্থিতি সামাল দেয়ার মতো প্রস্তুতি ছিল না চীনের।

এমন অবস্থায়, নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, চীন থেকে দেশটিতে প্রবেশে কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে। এ বিষয়ে চীন যথেষ্ট তথ্য সরবরাহ করছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্ক ইউরোপের দেশগুলোও। চীনে নতুন করে সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়া ও তাইওয়ানও। জারি করা হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

চীনের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে পুরো বিশ্ব

আপডেট সময় : ০১:৩০:৪২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ জানুয়ারী ২০২৩

চীনের করোনা পরিস্থিতি এখন লাগাম ছাড়া। সংক্রমণ ও মৃত্যু ব্যাপকহারে বেড়ে যাওয়ার আশংকা করছেন চিকিৎসকরা। এদিকে, সঠিক তথ্য না পাওয়ায় চীনের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগে পুরো বিশ্ব। 

চীনে ক্রমেই করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। ধারণ করছে ভয়াবহ আকার। এখন পর্যন্তও সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ কিছু করতে পারেনি চীন।
দেশটির এক সমীক্ষা রিপোর্ট বলছে, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে দৈনিক সংক্রমণ ১০ লাখে পৌঁছাবে। হাসপাতালে এখনই উপচে পড়া ভিড়, যা আরও দ্রুত বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

তবে এ মুহূর্তে দেশটির সঠিক পরিসংখ্যান প্রকাশ বন্ধ রয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, এই পরিস্থিতি সামাল দেয়ার মতো প্রস্তুতি ছিল না চীনের।

এমন অবস্থায়, নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, চীন থেকে দেশটিতে প্রবেশে কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট লাগবে। এ বিষয়ে চীন যথেষ্ট তথ্য সরবরাহ করছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে।

করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সতর্ক ইউরোপের দেশগুলোও। চীনে নতুন করে সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়া ও তাইওয়ানও। জারি করা হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ।