ঢাকা ০১:১৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০২৩, ১৭ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জাহাঙ্গীরের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৪২:১৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩
  • ৪ বার পড়া হয়েছে

গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নিয়েছে আওয়ামী লীগ। গত ১ জানুয়ারি বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের চিঠি ইস্যু হলেও তা গণমাধ্যমে আসে গতকাল শনিবার।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সই করা চিঠিতে বলা হয়, ‘শুভেচ্ছা গ্রহণ করবেন। আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বার্থ, আদর্শ, শৃঙ্খলা তথা গঠনতন্ত্র ও ঘোষণাপত্র পরিপন্থী কর্মকা-ে সম্পৃক্ততার জন্য এর আগে আপনাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার/অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আপনার বিরুদ্ধে আনিত সংগঠনবিরোধী কর্মকা-ের অভিযোগ স্বীকার করে আপনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন এবং ভবিষ্যতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র, নীতি ও আদর্শ পরিপন্থী কোনো কার্যকলাপে সম্পৃক্ত হবেন না মর্মে লিখিত অঙ্গীকার করেছেন। এ অবস্থায় গত ১৭ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংগঠনের গঠনতন্ত্রের ১৭ (৬) এবং ৪৭ (২) ধারা মোতাবেক আপনার প্রতি ক্ষমা প্রদর্শন করা হলো। ভবিষ্যতে কোনো প্রকার সংগঠনবিরোধী কর্মকা-ে লিপ্ত হলে, তা ক্ষমার অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের

আগে জাতীয় কমিটির সভায় সাংগঠনিক শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকা-ে জড়িতদের ক্ষমা করার সিদ্ধান্ত হয়।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে জাহাঙ্গীর আলমের একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে মুক্তিযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি। ওই ঘটনায় দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। এর পর ২৫ নভেম্বর গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাকে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জাহাঙ্গীরের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

আপডেট সময় : ১১:৪২:১৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩

গাজীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নিয়েছে আওয়ামী লীগ। গত ১ জানুয়ারি বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের চিঠি ইস্যু হলেও তা গণমাধ্যমে আসে গতকাল শনিবার।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সই করা চিঠিতে বলা হয়, ‘শুভেচ্ছা গ্রহণ করবেন। আপনার অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্বার্থ, আদর্শ, শৃঙ্খলা তথা গঠনতন্ত্র ও ঘোষণাপত্র পরিপন্থী কর্মকা-ে সম্পৃক্ততার জন্য এর আগে আপনাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার/অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আপনার বিরুদ্ধে আনিত সংগঠনবিরোধী কর্মকা-ের অভিযোগ স্বীকার করে আপনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন এবং ভবিষ্যতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র, নীতি ও আদর্শ পরিপন্থী কোনো কার্যকলাপে সম্পৃক্ত হবেন না মর্মে লিখিত অঙ্গীকার করেছেন। এ অবস্থায় গত ১৭ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংগঠনের গঠনতন্ত্রের ১৭ (৬) এবং ৪৭ (২) ধারা মোতাবেক আপনার প্রতি ক্ষমা প্রদর্শন করা হলো। ভবিষ্যতে কোনো প্রকার সংগঠনবিরোধী কর্মকা-ে লিপ্ত হলে, তা ক্ষমার অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলনের

আগে জাতীয় কমিটির সভায় সাংগঠনিক শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকা-ে জড়িতদের ক্ষমা করার সিদ্ধান্ত হয়।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে জাহাঙ্গীর আলমের একটি অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে মুক্তিযুদ্ধে নিহতের সংখ্যা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি। ওই ঘটনায় দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। এর পর ২৫ নভেম্বর গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাকে।