বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৫:১৩ অপরাহ্ন

ভারতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৫ জনের মৃত্যু॥ মোট ৩০৮, আক্রান্ত ৯,১৫২

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

করোনাকে (Coronavirus) বাগ মানাতে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির কথা ভাবা হয়েছে, কিন্তু দেশে ক্রমশ বেড়েই চলেছে ওই ভয়ানক সংক্রামক রোগে (Coronavirus in India) আক্রান্তের সংখ্যা। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, ভারতে এখনও পর্যন্ত COVID- 19 প্রাণ কেড়েছে ৩০৮ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনার শিকার হয়েছেন ৩৫ জন। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে মোট ৯,১৫২ জন করোনা ভাইরাসের আক্রান্ত। এদিকে এই পরিস্থিতিতে ঠিক কী কী পদক্ষেপ নেওয়া যায় তা ঠিক করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে মন্ত্রিপরিষদ আজ (সোমবার) থেকেই কাজ শুরু করবেন। নিজেদের দফতরের কাজ শুরু করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং ও অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনও।

শনিবারই ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোট ১৩ জন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে চার ঘণ্টার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদি ইঙ্গিত দিয়েছেন যে দেশের চলতি লকডাউনের মেয়াদ আরও দুই সপ্তাহের জন্যে বাড়ানো হবে।

এদিকে লাল, কমলা, সবুজ, ট্রাফিক সিগনালের মতো এই ৩ টি রং এখন ফুটে উঠবে ভারতীয় মানচিত্রে। দেশের সংক্রমিত আর সংক্রমণ-মুক্ত এলাকা চিহ্নিত করতে এই উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্র। কোন কোন এলাকায় মানুষের গতিবিধি নিয়ন্ত্রিত থাকবে না, তা স্থির করবে সবুজ রং। কোন এলাকায় মানুষের গতিবিধি নিয়ন্ত্রিত হবে, তা স্থির করবে কমলা রং। আর আঁতুড়ঘর অর্থাৎ লকডাউন জারি থাকার সম্ভাবনা কোথায়, তা লাল রং চিহ্নিত করবে।

এই রঙিন কোডিংয়ের ফলে প্রায় অর্ধেক দেশ কমলা বা লাল বর্ণের হয়ে উঠতে পারে, এমনই আশঙ্কা করা হচ্ছে। কেননা দেখা গেছে যে দেশের বিভিন্ন রাজ্যের জেলাগুলোর মধ্যে ৫০ শতাংশেরও বেশি অঞ্চলে COVID- 19 আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। বর্তমানে ৩৬৪ টি জেলা করোনা আক্রান্ত, অথচ এই সংখ্যা ৬ এপ্রিল ছিল ২৮৪ এবং ২৯ মার্চ ছিল ১৬০।

দেশের মধ্যে যে রাজ্যগুলোতে সবচেয়ে বেশী করোনার প্রভাব লক্ষ্য করা গেছে সেগুলো হল, মহারাষ্ট্র (১,৯৮৫), দিল্লি (১,১৫৪), তামিলনাড়ু (১,০৭৫), রাজস্থান (৮০৪), মধ্যপ্রদেশ (৫৩২) এবং গুজরাট (৫১৬)।

দিল্লিতে, রবিবার সন্ধেবেলায় আরও দশটি নতুন করোনা ভাইরাস হটস্পটের ঘোষণা করা হয়েছে, এর ফলে দেশের রাজধানীতে মোট হটস্পটের সংখ্যা এখন ৪৩।

এদিকে শুধু ভারতই নয়, করোনা ভাইরাসে COVID- 19 টালমাটাল গোটা বিশ্বই। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসের কারণে মৃত্যু হয়েছে ১,৫১৪ জনের, যা এখনও পর্যন্ত একটা রেকর্ড।

বাল্টিমোরে অবস্থিত ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে বর্তমানে আমেরিকায় ওই মারণ ভাইরাসের শিকার ৫,৫৫,৩১৩ জন, যা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।
গত বছরের ডিসেম্বরে চিনের উহান প্রদেশ থেকে প্রথম এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। দেখতে দেখতে এখন গোটা বিশ্বের প্রায় দেড় মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ওই ভয়ঙ্কর রোগে সংক্রমিত।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: The It Zone
freelancerzone