বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩৬ অপরাহ্ন

খিলগাঁও তালতলায় আরও ৬ জনকে দাফন

মাহমুদুর রহমান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২০

রাজধানীর খিলগাঁও তালতলা কবরস্থানে নতুন করে আরও ৬ জনের দাফন সম্পুর্ন হয়েছে। দাফনকৃতরা সকলেই করোনায় (কভিট-১৯)এ আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে মৃত্যু সনদে উল্লেখিত।এ নিয়ে তালতলা কবরস্থানে করোনা সন্দেহে ও করোনায় আক্রান্ত মোট ৪৩ জনকে দাফন করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১ টায় বৈশাখের উত্তপ্ত সূর্যকে সম্পুর্ন অগ্রাহ্য করে তালতলা কবরস্থানের প্রধান ফটক দিয়ে প্রবেশ করে আল-মারকাজুল হাসপাতালের একটি অ্যাম্বুলেন্স এবং একটি লাশবাহী ফ্রিজিং গাড়ি। গাড়ি দুটো সোজা চলে যায় কবরস্থানের শেষ প্রান্তে,করোনায় মৃতদের দাফনের নির্ধারিত স্থানে।

এরপর গাড়ি দুটো থেকে স্ট্রেচারে করে নামানো হয় একে একে ৪ টি মৃতদেহ। এসময় আল-মারকাজুলের ৬ জন,কবরস্থানের ৪ জন স্টাফ এবং মৃত ব্যাক্তিদের ২ জন স্বজন উপস্থিত ছিলেন।মৃতদেহ নামানোর পর মারকাজুলের স্টাফ এবং স্বজনেরা জানাযার নামায পরেন।

জানাযা শেষে আল-মারকাজুলের সদস্যরা একে একে ৪ জনকে দাফন করেন। দাফন শেষে প্রতিবারের মত এবারও তাদের পরনে থাকা ব্যাক্তিগত সুরক্ষা পোশাক (পিপিই)আগুনে পুড়ে ধ্বংস করেন,এবং জীবাণু নাশক দিয়ে একে অন্যকে জীবাণু মুক্ত করেন।

এরপর বিকেল ৪ টায় (রহমতে আমল)এর দায়িত্বে ১টি এবং সন্ধ্যা ৬ টার কিছু পরে আরও ১টি মৃতদেহ একই ভাবে এনে দাফন করা হয়।

মৃত ব্যাক্তিদের মধ্যে একজনের বয়স ৮০ বছর।তিনি ঢাকার কেরানীগঞ্জের বেগুনবাড়ির অধিবাসী ছিলেন।তিনি কুয়েত মৈত্রী হসপিটালে মারা যান।মৃত্যুর কারন হিসেবে করোনায় আক্রান্ত হয়ে শারীরিক জটিলতার কথা মৃত্যু সনদে উল্লেখ করা আছে।
আরেকজন ৫০ বছর বয়সী মহিলা।

তিনি ফতুল্লাহ,নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা।তিনি কুর্মিটোলা হসপিটালে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে উল্লেখিত মৃত্যু সনদে। অপরজন ৭৫ বছর বয়সী।

তিনি নাখালপাড়া, তেজগাঁও এর বাসিন্দা। তিনিও কুর্মিটোলা হসপিটালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান বলে তার মৃত্যু সনদে উল্লিখিত। আরেকজন ৭৩ বছর বয়সী মহিলা।তিনি উত্তরার ১৩ নং সেক্টরের বসিন্দা ছিলেন।

তিনিও করোনায় আক্রান্ত হয়ে কুর্মিটোলা হসপিটালে মারা যান। অপরজন ৫২ বছর বয়সী,তিনি সিদ্ধিরগঞ্জ,নারায়ণগঞ্জের বাসিন্দা।তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটালে মৃত্যুবরন করেন। এবং সর্বশেষ জনের তথ্য এই প্রতিবেদন লেখার আগ পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

তবে আজ ৬ জনের দাফনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তালতলা কবরস্থানের দায়িত্বরত স্টাফ (ইমাম)হাফেজ মো: নাসির উদ্দিন এবং হাফেজ মো: ফেরদৌস।
হাফেজ নাসির উদ্দিন জিনিউজকে আরও বলেন, সবাই খালি মরা মানুষের খবর নেয়! আমগো খবর কেও নেয়না। এই যে এত ঝুকি নিয়া কাজ করি, আমাদের পর্যাপ্ত মাক্স নাই, গ্লোভস নাই, কোন পিপিই নাই।

কয়েকদিন আগে এক সাংবাদিক একটা দিছে। কিন্তু একটাতে তো চলে না! অফিস থেকে দিছে একটা রেইনকোট এইটা পরলে গরমে টেকাই যায়না।

তাই তিনি কাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী যেমন; পিপিই, গ্লোভস, মাক্স, বুট ইত্যাদি যেন তারা পর্যাপ্ত পরিমাণে পান সেই অনুরোধে জানান।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: The It Zone
freelancerzone