সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:৩৭ অপরাহ্ন

চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় টহল দিতে বাধা দিচ্ছে: ভারতের অভিযোগ

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • Update Time : শুক্রবার, ২২ মে, ২০২০

চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (এলএসি) সংলগ্ন এলাকায় ভারতকে টহলদারিতে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল (বৃহস্পতিবার) ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত মন্তব্য করা হয়েছে। একইসঙ্গে চীনা ভূখণ্ডে ভারতীয় সেনাদের অনুপ্রবেশের কারণে দু’দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার অভিযোগও ভারত তীব্রভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, সীমান্তে ভারতের সমস্ত কার্যক্রম ভারতের ভূখণ্ডের দিকে চলছে এবং নয়াদিল্লি সর্বদা সীমান্ত ব্যবস্থাপনার প্রতি অত্যন্ত দায়িত্বশীল মনোভাব নিয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও বলেছে, ভারত তার সার্বভৌমত্ব ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, চীনা পক্ষই সম্প্রতি এই অঞ্চলগুলোতে ভারতের সাধারণ টহল ব্যাহত করে এমন কার্যক্রম চালিয়েছিল।

তিনি বলেন, এ জাতীয় তথ্য সত্য নয় যে, ভারতীয় সেনারা পশ্চিমাঞ্চলীয় সেক্টর বা সিকিম সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (এলএসি) পেরিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও তৎপরতা চালিয়েছিল। ভারতীয় সেনারা ভারত-চীন সীমান্তবর্তী অঞ্চলে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার প্রান্তিক বিন্যাস সম্পর্কে সম্পূর্ণ সচেতন এবং আন্তরিকভাবে এটি অনুসরণ করে।’

অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, ‘আসলে, চীনা পক্ষই সম্প্রতি ভারতের সাধারণ টহল ব্যাহত করার জন্য তৎপরতা চালিয়েছিল। সীমান্ত ব্যবস্থাপনার প্রতি ভারতীয় পক্ষ সর্বদা অত্যন্ত দায়িত্বশীল মনোভাব নিয়েছে। একইসঙ্গে আমরা ভারতের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সম্পূর্ণ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

চীন সম্প্রতি ভারতকে লাদাখের অনির্ধারিত সীমান্তের স্থিতি পরিবর্তনের জন্য একতরফা চেষ্টা করার অভিযোগ করেছে। বেজিংয়ের দাবি, সীমান্ত অতিক্রম করে চিনা ভূখণ্ডে সামরিক পদক্ষেপ করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী, যার জবাবে চীনা সেনারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

সম্প্রতি লাদাখ এবং সিকিমে মুখোমুখি সংঘর্ষে জড়িয়েছে ভারত ও চীনের সেনারা। চলতি মাসের প্রথম দিকে সিকিমের নাকুলা’য় চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির জওয়ানদের সঙ্গে ভারতীয় সেনাদের ধাক্কাধাক্কি হয়।

গত ১০ মে’র ওই ঘটনায় দু’পক্ষেরই বেশকিছু জওয়ান আহত হয়। সিকিমের ওই ঘটনার আগে গত ৫ মে লাদাখে এলএসি’র খুব কাছে উড়তে দেখা যায় চীনের দু’টি চপারকে। তাৎক্ষণিকভাবে পরিস্থিতির অবনতি না হলেও ওই দিন সন্ধ্যায় চীনের সেনা জওয়ানদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় ভারতীয় সেনার। এরফলে দু’দেশেরই জওয়ানরা আহত হয়।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone