সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাজুবাদাম, কফিসহ অপ্রচলিত ফসল চাষে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চেহারা পাল্টে যাবে: কৃষিমন্ত্রী দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছে ৫৩ হাজার পরিবার মাগুরায় মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে গৃহপ্রদান উপলক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে ৬৮১ গৃহহীন পরিবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র হলে কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে- ময়মনসিংহে এসপি অর্ধশত ছাড়ালো আত্রাইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সুনামগঞ্জের যাদুকাটা নদীতে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার ডোমারে জেলা পরিষদের উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ ঝিনাইদহে ৭ দিনের কঠোর বিধি নিষেধ শুরু নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে সার্টিফিকেট কোর্সের উদ্বোধন

Surfe.be - Banner advertising service

ফের তিস্তার পানি বিপদসীমার ১৮ সেন্টিমিটার ওপরে

নীলফামারী প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৬ জুন, ২০২০
  • ১১৭ বার পঠিত

ভারী বর্ষন আর উজানের পাহাড়ী ঢলে ফের নীলফামারীর ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার (৫২ দশমিক ৬০সেঃ) ২০ সেন্টিমিটার ওপরে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল।

তিস্তা ব্যারাজের গেজ পাঠক (পানি পরিমাপক) নুরুল ইসলাম আজ শুক্রবার (২৬ জুন) সকালে জানান, সারা রাতের বৃষ্টির ফলে ও উজানের পাহাড়ী ঢলে সকাল ৬টায় ওই পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। পরে সকাল ৯টায় তা কমে বিপদসীমার (৫২ দশমিক ৭৮সেঃ) অর্থাৎ ১৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের সতর্কীকরন কেন্দ্র ও স্থানীয় আবহাওয়া অফিস সুত্রে জানা যায়, ব্যারাজের পাশ্ববর্তী এলাকায় গত ২৪ ঘন্টায় ১৪৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রের্কড করা হয়েছে। ফলে ভারী বৃষ্টিপাতের কারনে ডিমলা এলাকার নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পাশাপাশি স্বেচ্ছাশ্রমে নির্মিত চড়খড়িবাড়ী এলাকার একটি ক্রস বাঁধ হুমকির মুখে পড়েছে।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী (পানি শাখা) আমিনুর রশিদ জানান. উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও ভারী বৃষ্টিপাতের কারনে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এছাড়াও ব্যারাজের সব গেট খুলে রাখায় ভাটি এলাকার খালিশা চাঁপনী ও বাইশপুকুর চর প্লাবিত হয়েছে।

উপজেলার পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ খাঁন মুঠোফোনে জানান, টানা বর্ষন আর উজানের পাহাড়ী ঢলে তিস্তার পানি বিপদসীমার ১৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় চরাঞ্চলের অধিকাংশ মানুষের মাছের খামার জাল দিয়ে ঘিরে রেখেছে, আবার অনেকেই গবাদী পশু, হাঁস মুরগী উঁচু জায়গায় সরিয়ে নিয়েছে।

এদিকে, তিস্তার বন্যায় জেলার ডিমলা উপজেলার পুর্ব ছাতনাই, খগাখাড়বাড়ী, টেপাখড়িবাড়ী, খালিশা চাপানী, ঝুনাগাছ চাঁপানী, গয়াবাড়ী ও জলঢাকার গোলমুন্ডা, ডাউয়াবাড়ী, শৌলমারী ও কৈমারী ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকায় ১০টি চর ও চর গ্রামের ৮ হাজার পরিবারে বন্যার পানী প্রবেশ করার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে বলে জানান, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বের্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬ টায় ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার (৫২ দশমিক ৬০ সেঃ) ৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হলেও পানি বৃদ্ধি অব্যাহত ছিল। তিনি জানান, আজ সকালে তিস্তার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে ১৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হছে।

Surfe.be - Banner advertising service

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451