রবিবার, ১৪ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

Surfe.be - Banner advertising service

শাহজাহান সিরাজের মৃত্যুতে ইতিহাসের কিংবদন্তীর সমাপ্ত হলো : ন্যাপ

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০

বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের কিংবদন্তী নায়ক, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, স্বাধীনতার ইসতেহার পাঠক শাহজাহান সিরাজের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, শাহজাহান সিরাজ ইতিহাসের কিংবদন্তী। তার মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের এক জলন্ত অধ্যায়ের অবসান হলো।
মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক শোক বার্তায় নেতৃদ্বয় মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

তারা বলেন, স্বাধীনতা ও স্বাধীনতা পূর্ববর্তী উত্তাল ছাত্র আন্দোলনের নেতৃত্বদানকারী ৪ খলিফা খ্যাত ৪ জনের একজন শাহজাহান সিরাজ। মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠকারী, স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের এই বর্ষীয়ান রাজনীতিকের জীবনের শেষ দিনগুলো কেটেছে বড়ই নিঃসঙ্গতায়। জীবন-মৃত্যুর সংকটাপন্ন অবস্থায় কেউ ছিল না তার পাশে। এটা রাষ্ট্রের ও রাজনীতিকদের চরম ব্যর্থতা ও চরম গ্লানিকর।

নেতৃদ্বয় বলেন, শাহজাহান সিরাজ ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যত্থানে অগ্রণী ভূমিকা রাখেন। পরবর্তীতে তিনি ১৯৭০ সালে পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭১ সালের ২ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যা য়ের বটতলায় স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন আ স ম আবদুর রব। সেখান থেকেই পরবর্তী দিনে স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠের পরিকল্পনা করা হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৩ মার্চ ১৯৭১ পল্টন ময়দানে বিশাল এক ছাত্র জনসভায় বঙ্গবন্ধুর সামনে স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠ করেছিলেন তিনি। এরপর মুক্তিযুদ্ধকালিন সময়ে ‘বাংলাদেশ লিবারেশন ফোর্স’ (বিএলএফ) বা মুজিব বাহিনীর কমান্ডার হিসেবেও দায়িত্ব¡ পালন করেছেন।

তারা বলেন, ‘মৃত্যুর পর আমার কবরে ফুল দিও না। বেঁচে থাকতে আমাকে অপবাদ দিও না’ এই ঐতিহাসিক উক্তিটারই যথাযথ প্রয়োগ ঘটেছে জননেতা শাহজাহান সিরাজের জীবনে। যারা আজ মৃত্যুর পর তাঁকে শ্রদ্ধা জানাবো তারা সেই শ্রদ্ধা ও ভালবাসাটুকু তাঁর শেষ সময়ে মৃত্যুর পূর্বে যদি জানাতে পারতাম তাহলে তিনি মরেও শান্তি পেতেন।

ইতিহাস কাউকে ক্ষমা করে না। আর ইতিহাসের কালজয়ী কোন অধ্যায় কেউ মুছেও ফেলতে পারে না। বাংলাদেশের মানচিত্রের সাথে বঙ্গবন্ধুর নাম যেভাবে জড়িয়ে আছে, ঠিক সেভাবেই শাহজাহান সিরাজের নাম জড়িয়ে থাকবে।
তার অমর স্মৃতির প্রতি বাংলাদেশ ন্যাপ’র পক্ষ থেকে গভীরতম শ্রদ্ধা।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone