সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা ও ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের প্রতি নিন্দা জানিয়ে মানববন্ধন

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • Update Time : সোমবার, ৩ আগস্ট, ২০২০

করোনা মহামারীকালীন সময়ে চাকরি আছে বেতন নাই এমন সাংবাদিকদের আর্থিক প্রণোদনা দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ, অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। এ বিষয়টি পৃথিবীতে বিরল। আমার জানামতে কোনো রাষ্ট্র সাংবাদিকদের এইভাবে প্রণোদনা দেয়নি। যে সমস্ত গণমাধ্যম করোনাকালীন সময়ে সাংবাদিকদের বেতন ভাতা ও প্রণোদনা দিয়েছে সেই সমস্ত প্রতিষ্ঠানের মালিকদেরকেও ধন্যবাদ, অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা।

করোনাকালীন সময়ে পত্রিকা ও সাংবাদিকদের বেতন ভাতা বন্ধ রাখার কারণে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের প্রেসিডেন্ট ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের সম্পাদক ও প্রকাশক কাজী রফিকুল আলম এর প্রতি তিরস্কার ও নিন্দা জানিয়ে ১ আগস্ট ২০২০ইং তারিখ শনিবার সকাল ১০টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ফোজিত শেখ বাবু।

তিনি বলেন, গত ২৯ জুলাই তারিখে দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার অর্থ ও হিসাব বিভাগ থেকে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এ.কে.এম আনোয়ার হোসেন স্বাক্ষরিত রেজিষ্ট্রি করা চিঠির মাধ্যমে ডাকা হয়েছিল। চিঠিতে উলে¬খ ছিল- অবস্থা বিবেচনা, আপনার আবেদন ও মৌখিক অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে বিশেষ বিবেচনায় আপনার চূড়ান্ত পাওনার হিসাব প্রস্তুত করা আছে। তাই আপনাকে অফিস চলাকালীন সময়ে এই প্রতিষ্ঠানের অর্থ ও হিসাব বিভাগ থেকে ওই টাকা অবিলম্বে গ্রহণ করার জন্য বলা হলো।

কিন্তু অফিসে (ফোজিত শেখ বাবু) গেলে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এ.কে.এম আনোয়ার মানবিক বিবেচনার কথা বলে ২ লক্ষ টাকার একটি হিসাব দেখিয়ে বিদায় করে দেন। তিনি কোনো টাকা পয়সা দেননি। এর পূর্বেও এই প্রতিষ্ঠান টেলিফোনে ডেকে দুইবার আরও দুইটি হিসাব দেখান। প্রথমটি ছিল ৭৬ হাজার ৪৫১ টাকা। দ্বিতীয়টি ১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৬৮৪ টাকা।

তার মানে একই প্রতিষ্ঠান থেকে ৩ বারে তিন প্রকার সার্ভিস বেনিফিট এর হিসাব দেখানো হলো। কিন্তু সুষ্ঠু হিসাবে জুলাই ২০২০ইং পর্যন্ত আমার সর্বমোট পাওনা হয়েছে ৬ লক্ষ ৩৪ হাজার ১৬ টাকা। আহ্ছানিয়া মিশন নামক মানবিক প্রতিষ্ঠানের এই অমানবিক কর্মকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

আমার টাকার পরিবর্তে আমার বোন রেহেনা আক্তারের কোলন ক্যান্সারের চিকিৎসা ও দাবি করেছিলাম কিন্তু তারা দেয়নি।

তাদের এই তালবাহানার ফলে আমার বোনটা ভালো চিকিৎসা না পেয়ে অকালে মারা যান। ঈদের দিনে এই কথা বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন ফোজিত শেখ বাবু। অনেক আশা ছিল গত ২৯ তারিখে টাকা পেলে ঈদের দিনে অনেক সুন্দরভাবে ঈদ করব। সেই ঈদ করা আমার ও আমার পরিবারের হল না। আমাকে দীর্ঘ দিন যাবৎ তদন্তকালীন অপসারণ করে এবং বেতন ভাতা বন্ধ রাখে। বৃথাই অন্য কোথাও চাকরিতে যোগদান করতে পারতেছিনা।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone