সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাজুবাদাম, কফিসহ অপ্রচলিত ফসল চাষে পাহাড়ের অর্থনৈতিক চেহারা পাল্টে যাবে: কৃষিমন্ত্রী দ্বিতীয় পর্যায়ে ঘর পাচ্ছে ৫৩ হাজার পরিবার মাগুরায় মুজিববর্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে গৃহপ্রদান উপলক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাচ্ছে ৬৮১ গৃহহীন পরিবার মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র হলে কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে- ময়মনসিংহে এসপি অর্ধশত ছাড়ালো আত্রাইয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সুনামগঞ্জের যাদুকাটা নদীতে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার ডোমারে জেলা পরিষদের উদ্যোগে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ ঝিনাইদহে ৭ দিনের কঠোর বিধি নিষেধ শুরু নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে সার্টিফিকেট কোর্সের উদ্বোধন

Surfe.be - Banner advertising service

কলাপাড়ায় শাহিন আলমের দুটি কিডনিই নষ্ট, বাঁচার আকুতি

রাসেল কবির মুরাদ, কলাপাড়া প্রতিনিধি (পটুয়াখালী) ঃ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২০
  • ১০৫ বার পঠিত

কলাপাড়ার ধুলাসার ইউনিয়নে নয়াকাটা গ্রামে মন্নান হাওলাদারের একমাত্র ছেলে শাহিন আলম দীর্ঘ দশ বছর পর্যন্ত কলাপাড়ার বিভিন্ন বাসা-বাড়ী ও অফিস আদালতে টাইলসের রাজ মিস্ত্রি হিসেবে কাজ করতেন। জুলাই মাসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ বরিশাল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ডাক্তারি পরিক্ষার (টেষ্ট রির্পোটে) আসে তার কিডনি দু’টি নষ্ট হয়ে গেছে। এর পর শরীরের কোনো উন্নতি না হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় চিকিৎসা নিতে পরামর্শ দিয়েছেন।

বর্তমানে শাহিন ঢাকার বারডেম হাসপাতালে ডা: রেজওয়ান রহমান-এর তওÍাবধায়নে রয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, শাহিনকে সুস্থ করে তুলতে তাকে সপ্তাহে দু’টি কেমোথেরাপি ও এক ব্যাগ রক্ত এবং কিডনি দু’টি পরিবর্তন করতে হবে। প্রতিটি কেমোথেরাপির দাম ১৯০০টাকা। আর প্রতিমাসে ঔষধ ব্যবদ ত্রিশ হাজার টাকার প্রয়োজন।

কিডনি দু’টি পরিবর্তন করে নতুন একটা কিডনি দিতে তার একমাত্র মা ছেলেকে বাচাঁনো জন্য তার একটি কিডনি হস্তন্তর করবেন। নতুন একটি কিডনি সংযুক্ত করলে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবে। তার এ চিকিৎসার জন্য ঔষধপত্রের খরচ মিলিয়ে প্রায় ছয় লক্ষ টাকার মতো লাগবে। বর্তমানে পরিবার নিয়ে বেঁচে থাকাই তার জন্য কষ্টের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। শাহিন আলমের বৃদ্ধ অসুস্থ স্ট্রোক করা পিতার পক্ষে এই ব্যয়ভার বহন একেবারেই অসম্ভব। ব্যয়বহুল এ চিকিৎসা খরচ জোগাতে দেশের হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন মো.শাহিন আলমের পরিবার।

শাহিন আলমের মা ফারিদা বেগম জানান, ২০২০ জুলাই-আগষ্ট মাসে তিন লাখ টাকা খরচ করছি ছেলের পিছনে। আমার ছেলের চিকিৎসার করতে গিয়ে নিজের গয়নাগাঁটি, জমিজমা বিক্রি করে মানুষের কাছে চেয়ে চিকিৎসা করিয়েছি। এবার কিভাবে কি হবে জানি না। সমাজের বিওশালীদের একটু সহায়তাই পারে শাহিন আলমকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আসবে।

অশ্রৃজড়িত কন্ঠে শাহিনের মা বলেন, আমি বিশ্বাস করি নিশ্চয় আপনাদের রয়েছে দীর্ঘশ্বাস মিশ্রিত মমত্ববোধ। আপনারা এই অসহায় ছেলেটির কথা এবং পরিবারটির সার্বিক অবস্থা বিবেচনাপুর্বক বাড়িয়ে দেবেন- ভালোবাসার হাত। যে হাতটি হবে এই পরিবারটির জন্য অত্যন্ত নির্ভরতার। সর্বশেষে কেঁদে কেঁদে বলেন, ওকে বাঁচান, ওর আতœাকে বাঁচান, ওকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন-ভালবাসার হাতটা বাড়িয়ে দিন। দেশের হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন শাহিন আলম। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা ও বিস্তারিত তথ্যের জন্য মোবাইল – ০১৭৮৬-৫৩৬৭৪৪ (বিকাশ অ্যাকাউন্ট করা রয়েছে)।

 

Surfe.be - Banner advertising service

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451