মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন

মান্দায় ইউডিসি উদ্যোক্তাকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, মান্দা প্রতিনিধি (নওগাঁ) :
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নওগাঁর মান্দা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা আতিকুর রহমান ওরফে আতিককে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় শ্যামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক আবু সাঈদ সেলিমের বিরুদ্ধে গত সোমবার উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ মান্দা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী আতিকুর রহমান জানান, ‘গত ২০ আগস্ট বিকেলে আমি অফিস থেকে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলাম। পথে শ্যামপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে পৌঁছলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে শিক্ষক আবু সাঈদ সেলিম তার অনুগত বাহিনীর ৩-৪জনকে সাথে নিয়ে জোরপূর্বক আমার পথরোধ করে। এরপর তারা মোটরসাইকেল থেকে আমাকে নামিয়ে মারপিটসহ প্রাণনাশের চেষ্টা চালায়। এ সময় আমার আর্ত চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে শিক্ষক সেলিমসহ তার বাহিনীকে সটকে পড়েন।

তিনি আরও জানান,‘২০১৮ সালের ১২ জানুয়ারি মোটরসাইকেলের হর্ণ বাজানোকে কেন্দ্র করে শিক্ষক সেলিম আমার সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে তিনি আমাকে লাঞ্ছিত করেন । আপেক্ষ্য করে আরও বলেন, শিক্ষক সেলিম এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ায় বিভিন্ন অপরাধকর্ম করলেও বারবার পার পেয়ে যান। তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেই বিভিন্নভাবে হয়রানীর শিকার হতে হয়। এসব ভয়ে তার বিরুদ্ধে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস করেন না। একই কারণে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দিয়েও ন্যায় বিচার থেকে আমি বারবার উপেক্ষিত ও বঞ্চিত হয়েছি।’

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, বিধবা নারীর সম্পত্তি জবরদখল, মামাতো ভাই ও প্রতিবন্ধীর সম্পত্তি দখল, যাতায়াতের রাস্তা বন্ধসহ গ্রামে মারামারি ও নানা সময়ে নানা রকম কোন্দল সৃষ্টি করে চলেছেন শিক্ষক সেলিম। এসব ঘটনায় ভুক্তভোগীরা বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। শিক্ষক সেলিমের ক্ষমতার দাপটে অভিযোগকারীরা নানাভাবে হয়রানী ও নির্যাতনের শিকার পর্যন্ত হচ্ছেন।

তবে এসব অভিযোগ আমূলে অস্বীকার করেছেন সহকারি শিক্ষক আবু সাঈদ সেলিম। তিনি বলেন, ‘আমি কারও সম্পত্তি জবরদখল করিনি। কারও সাথে আমার দ্বন্দ্ব পর্যন্ত নেই কিংবা মারপিটের ঘটনাও কখনো ঘটেনি।

মান্দা থানার পরিদর্শক তদন্ত তারেকুর রহমান সরকার জানান, উপপরিদর্শক আবদুল মালেক ‘ঘটনাটির তদন্ত করছেন। অভিযোগের সত্যতা যাচাইপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছেও অভিযোগ করছেন বলেও তিনি আরো জানান।

মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল হালিম জানান, ‘অভিযোগের বিষয়টি একটি ফৌজদারী অপরাধ। এ জন্য অভিযোগপত্রটি যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠানো হয়েছে।

 

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone