মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০২:০৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

প্রাথমিক শিক্ষকদের টাইম স্কেল ফেরত প্রদানের নির্দেশ পত্র বাতিলের দাবি

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী প্রতিনিধি (দিনাজপুর ) :
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৪৪ বার পঠিত

২০১৩-১৪ ইং সালে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের টাইম স্কেল ফেরত প্রদানের নির্দেশ বাতিলের দাবিতে উপজেলার নব্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা প্রতিবাদ সভা করেছে । গতকাল রবিবার বেলা ১টায় ফুলকুড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ মোক্তার হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রতিবাদি বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক শ্রী সন্তোষ চন্দ্র রায়, মৌলভীর ডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খন্দকার হাবিবুর রহমান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির জেলা আহবায়ক ও কেন্দ্রিয় যুগ্ন সমন্বয়ক মোঃ মমিনুল ইসলাম, বিরল উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি শ্রী অধীন চন্দ্র সরকার, চিরিরবন্দর শিক্ষক সমিতির সভাপতি আব্দুল হালিম, পার্বতীপুর সহকারি শিক্ষক সমাজের সভাপতি মোঃ শামসুজ্জামান।

বক্তারা দাবি করেন, ২০১৩ সালের ৯ই জানুয়ারী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ঐতিহাসিক শিক্ষক মহাসমাবেশে ২৬,১৯৩টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কর্মরত ১,০৪,৭৭২ জন শিক্ষকের চাকুরী জাতীয়করণ করেন। জাতীয়করনকৃত (অধিগ্রহনকৃত) প্রাথমিক বিদ্যালয় (চাকুরী শর্তাদি নির্ধারন) বিধিমালা ২০১৩ বিধি (৯) উপবিধি (১) এর ভূল ও মনগড়া ব্যাখ্যা দিয়ে জাতীয়করনকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। বিধি অনুযায়ী কার্যকর (৫০%) চাকুরীকালের ভিত্তিতে জেষ্ঠ্যতা নির্ধারন, পদোন্নতি, সিলেকশন গ্রেড এবং প্রযোজ্য টাইমস্কেল প্রাপ্য হয়ে আসছেন।

অথচ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর গত ০৮/১০/২০১৭ তারিখ এক পত্রের মাধ্যমে বিভাগ ওয়ারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মহোদয়গণকে অধিদপ্তরে ডেকে এনে কার্যকর চাকুরীকালের (৫০%) ভিত্তিতে চাকুরীকাল গণনা না করে বিধি ৯ উপবিধি ১ এর ভূল ব্যাখ্যা দিয়ে কার্যকর চাকুরীকালের পরিবর্তে ০১/০১/২০১৩ (কাল্পনিক জাতীয়করণের তারিখ) ধরে জেষ্ঠ্যতা তালিকা করার মেীখিক নির্দেশনা দেন। প্রাথমিক গণশিক্ষা মন্ত্রনালয় কর্তৃক যতগুলো আইন ও পরিপত্র জারি করা হয়েছে তার কোনটাতেই জাতীয়করণের তারিখ অর্থাৎ ০১/০১/২০১৩ ইং ধরে গণনা করার কথা বলা হয়নি।

অন্যদিকে পৌনে আট বছর পর একই কায়দায় বিধি ৯ উপবিধি ১ এর ভূল ব্যাখ্যা দিয়ে কিছু সংখ্যক ষড়যন্ত্রকারীর কুপ্রেরচনায় জাতীয়করণ পূর্বেও চাকুরীকাল গণনা না কওে হিসাব রক্ষক অফিস গুলো প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষকদের উত্তোলনকৃত টাইমস্কেল ফেরত প্রদানের জন্য অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

উপরোল্লিখিত ধারাবাহিকতায় গত ১২ আগষ্ট ২০২০ তারিখে অর্থ মন্ত্রনালয় কতৃক পৌনে আট বছর পর কর্মরত শিক্ষকদের ভোগকৃত টাইমস্কেল ফেরত প্রদানের জন্য এক পত্র জারি করেন। যার দরুন ৪৮,৭২০ জন শিক্ষক চরম ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছে। এমতাবস্তায় অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক অন্যায়ভাবে জারিকৃত পত্রটি প্রত্যাহার করা একান্ত প্রয়োজন। এ জন্য নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করতে দেশব্যাপী শিক্ষকদের ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

আগামী ১৭/০৯/২০২০ ইং তারিখে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোট মানব বন্ধন কর্মসূচি সফল করতে এবং কেন্দ্রিয় কর্মসূচি সমূহ সঠিকভাবে পালনে উপস্থিত শিক্ষকগণ একত্তত¦া প্রকাশ করেন।

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451