বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:০৪ অপরাহ্ন

পীরগঞ্জে রংপুর-ঢাকা মহাসড়ক ৪ লেনে উন্নিত করন কাজে বড়িম্বনা

সরওয়ার জাহান, ভ্রাম্মমান প্রতিনিধি পীরগঞ্জ (রংপুর) ঃ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৫৮ বার পঠিত

সড়ক ও জনপদ বিভাগের সার্বিক তত্ত্বাবধানে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কটির ৪ লেন নির্মান কাজ চলছে। সড়কটির পলাশবাড়ী থেকে বড়দরগাহ পর্যন্ত নির্মান কাজে বিড়ম্বনায় পড়ছে সংষিøষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। নানান জটিলতার কারনে অধিগ্রহনকৃত জমির সিংহভাগ মালিক দীর্ঘ ১ বছরেও তাদের প্রাপ্য টাকা বুঝে না পাওয়ায় তাদের অধিগ্রহনকৃত জমির সীমানায় কাজ করতে বাঁধা প্রদান করায় ওই বিড়ম্বনার সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, সড়কটির ডব্লিউ পি-১১ প্যাকেজ এ ‘পলাশবাড়ী থেকে বড়দরগাহ’ পর্যন্ত ২৭ কি: মি: সড়ক ৪ লেন নির্মাণে কর্তৃপক্ষ ব্যয় বরাদ্দ দিয়েছে ৫’শ ২৫ কোটি টাকা। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ‘চায়না কন্সট্রাকশন সেভ ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশন লি:’ সড়কটির বর্নিত ২৭ কি:মিটার ৪ লেনে উন্নিত করনের কাজ করছে। কার্যাদেশ প্রাপ্ত বর্ণিত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গত বছরের ১৯ মার্চ সড়কটি নির্মাণ কাজ শুরু করে। ওই সময়ে বন্যা ও করোনা (কোভিড-১৯)’র কারনে দীর্ঘ ৫/৬ মাস কাজটি বন্ধ থাকার পর সেপ্টেম্বর মাসে পুণ:রায় শুরু করে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে ডব্লিউ পি-১১ প্যাকেজ এর ২৭ কি:মিটারের মধ্যে প্রায় ১৬ কি: মিটার এলাকার জমি অধিগ্রহনের টাকা প্রায় ১ বছর আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট পরিশোধ করা হয়েছে। অপরদিকে সড়কের দু’পাশে তড়িঘড়ি করে নতুন নতুন স্থাপনা তৈরী, জমির মূল্য নির্ধারন ও মালিকানার সঠিক কাগজ পত্রসহ নানা বিষয়ে জটিলতার কারনে এখনও সিংহভাগ জমির মালিক তাদের প্রাপ্য পাওনা টাকা পায়নি। ফলে সড়কটির নির্মান কাজে বিড়ম্বনার সৃষ্টি হচ্ছে।

সড়ক ও জনপদ বিভাগ এর প্রজেক্ট ম্যানেজার আফিড হোসাইন জানান, পলাশবাড়ীতে ১ কি: মি: পীরগঞ্জে ৮’শ মিটার স্পেশাল ফ্লাইওভার এবং ধাপেরহাটে ৬’শ মিটার, লালদিঘীতে ৪’শ মিটার আন্ডারপাস নির্মাণ করা ছাড়াও বর্ণিত সড়কটির পলাশবাড়ী বিটিসি মোড়, ধাপেরহাট, মাদারহাট, পীরগঞ্জ ও লালদিঘীতে সিসি ঢালাই দিয়ে এসব সড়কের নির্মান কাজ করা হবে ।

ভুক্তভোগী মালিকগণ জানায়, বিগত ৩ বছর ধরে সরকার মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণের লক্ষ্যে ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে অধিগ্রহনকৃত জমির মালিকদের মধ্যে অনেকেই তাদের জমির উপর স্থাপিত দোকান-ঘরের ভাড়া পাচ্ছেন না। অপর দিকে, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের লোকজন কাজ করতে গেলে তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে বাধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান সাংবাদিকদের জানান, ভিডিও ক্লিপস এবং ভূমি অফিসের জরিপের মাধ্যমে যে রিপোর্ট পেয়েছি সে অনুযায়ী জমির মালিকেরা টাকা পাবেন। নতুন করে স্থাপনা নির্মাণ করা হলে তারা কোন প্রকার ক্ষতি পূরণ পাবে না।

 

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451