বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:৪৬ অপরাহ্ন

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষ্যে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • Update Time : রবিবার, ৭ মার্চ, ২০২১

বেসরকারী পর্যায়ে উচ্চ শিক্ষার পথপ্রদর্শক, দেশের প্রথম বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে র‌্যাংকিং এ প্রথম স্থান অর্জনকারী নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষ্যে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

১৯৭১ সালের এ দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) তৎকালীন পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দেন। কালজয়ী ভাষণে বজ্রকন্ঠে তিনি ঘোষণা করেন “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”।

বঙ্গবন্ধুর এই আহ্বান বিদ্যুৎ বেগে ছড়িয়ে পড়ে সারা দেশে। স্বাধীনতার স্বপ্নে জেগে ওঠে পুরো জাতি। ক্ষেত্র প্রস্তুত হয় স্বাধীনতা সংগ্রামের। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কালজয়ী এ ভাষণ পৃথিবীর অন্যতম সেরা রাজনৈতিক ভাষণগুলোর একটি।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি এর স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স অফিসের পরিচালক অধ্যাপক ড. গৌর গোবিন্দ গোস্বামী এবং মূল আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ফিজিক্যাল সায়েন্সেস এর ডিন অধ্যাপক ড. জাবেদ বারী।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির উপ উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. ইসমাইল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাউথ ইস্ট ব্যাংক লিমিটেড এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, এফবিসিসিআই এর প্রাক্তন সভাপতি এবং নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব এম. এ. কাসেম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা লায়ন বেনজীর আহমেদ, জনাব আজিম উদ্দিন আহমেদ, জনাব আজিজ আল কায়সার, মিজ ইয়াসমীন কামাল এবং জনাব তানভীর হারুন ।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব এম. এ. কাসেম বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চ এর ভাষণে এদেশ পরিচালনার সব দিকনির্দেশনা বিদ্যমান ছিল এবং আজ এদেশের যত উন্নয়ন ও অগ্রগতি হচ্ছে তা সবই বঙ্গবন্ধুর অবদান। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে এদেশের জন্ম হত না। বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই আমরা এদেশের রাজনৈতিক, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক স্বাধীনতা লাভ করতে পেরেছিলাম। এসময় তিনি মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির গৃহীত নানা পদক্ষেপ এর কথা তুলে ধরেণ।

জনাব আজিম উদ্দিন আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু এদেশে জন্ম গ্রহণ করেছিলেন বলেই বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এ দেশ স্বাধীনতা লাভ করেছিল। বঙ্গবন্ধু তাঁর ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চের ভাষণে অত্যন্ত সাবলিল ভাবে আমাদের স্বাধীনতা লাভের জন্য করণীয় বিষয়াবলী এবং দেশ পরিচালনার সব দিক নির্দেশনা প্রদান করেছিলেন। এসময় তিনি নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে দেশ গঠনে ভূমিকা রাখতে আহ্বান জানান।

বীর মুক্তিযোদ্ধা লায়ন বেনজীর আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণে উদ্বুদ্ধ হয়েই আমরা মুক্তিযোদ্ধারা স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম এবং দেশ স্বাধীন করেছিলাম। আজকে এদেশের যত উন্নয়ন ও অগ্রগতি সাধন হয়েছে তা সবই বঙ্গবন্ধুর অবদান।

ড. এম. ইসমাইল হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চ এর ভাষণে অনুপ্রানিত হয়েই এদেশের মানুষ এদেশ স্বাধীন করেছিল এবং এ ভাষণ পরবর্তীতে দেশ পরিচালনার নীতিমালা হিসেবে কাজ করেছে। আমরা রাজনৈতিক স্বাধীনতা পেয়েছি, তবে আমরা ক্ষুধা, দারিদ্র্যতা, নিরক্ষরতা এবং অসুস্থতা থেকে মুক্তির জন্য যুদ্ধ করে চলছি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য এই সমস্যাগুলি সমাধানে নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে।

ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির স্কুল অব বিজনেস এন্ড ইকোনোমিক্স এর ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল হান্নান চৌধুরী, স্কুল অব হিউম্যানিটিস এন্ড সোস্যাল সায়েন্সেস এর ডিন অধ্যাপক ড. আব্দুর রব খান, স্কুল অব হেলথ এন্ড লাইফ সায়েন্সেস এর ভারপ্রাপ্ত ডিন, অধ্যাপক ড. হাসান মাহমুদ রেজা এবং নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির সাংস্কৃতিক সংগঠনের ফ্যাকাল্টি উপদেষ্টা মিজ রুমানা হক লুভা। এছাড়াও নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ এ সরাসরি সম্প্রচার এর মাধ্যমে সংযুক্ত ছিলেন বিপুল সংখ্যক শিক্ষকবৃন্দ, কর্মকর্তাবৃন্দ, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ ।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: The It Zone
freelancerzone