শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:০৫ পূর্বাহ্ন

সুনামগঞ্জে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে নিহত ১ নারী ও শিশুসহ আহত অর্ধশতাধিক

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ
  • Update Time : শনিবার, ১৩ মার্চ, ২০২১

সুনামগঞ্জের দুই উপজেলায় খাস জমি দখল ও ইমাম মোয়াজ্জিনকে নিয়ে পৃথক সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গুলাগুলির ঘটনার খবর পাওয়া গেছে। পৃথক এই সংঘর্ষের ঘটনায় ১জনের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় ২জন গুলিবৃদ্ধ হওয়াসহ নারী ও শিশু মিলিয়ে প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ২২জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। আর অন্যান্য আহতদের মধ্যে ৮জনকে ছাতক ও ১৬জনকে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- জেলার দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া ইউনিয়নের নুর নগর গ্রামের ফিরোজ আলী ও ফরল আলীর লোকজন খাস জমি দখল নিয়ে আজ শনিবার (১৩ই মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে প্রায় ২ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনায় শাহ মুলক (৪৫) নামের একজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া উভয়পক্ষের আহত হয় আরো ৩০জন। সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

অপরদিকে ছাতক উপজেলার দোলারবাজার ইউনিয়নের মুক্তারপুর গ্রামের রইছ আলী তার নিজবাড়িতে খাওয়ার জন্য গ্রামের মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিনকে দাওয়াত দেন। এঘটনাটি গ্রামবাসী জানতে পেরে ইমাম ও মোয়াজ্জিনকে রইছ আলীর বাড়িতে যেতে বাঁধা দেয়। তারই জের ধরে ওই গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের সাথে কালা রাজা ও আব্দুল আলীমের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মসজিদ মাঠে হাতাহাতি হয়। এঘটনাটি তাৎক্ষনিক ভাবে জানাজানি হওয়ার পর গ্রামের লোকজন দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে।

এরপর দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র ও বন্দুক নিয়ে সজ্জিত হয়ে দু’পক্ষের লোকজন একে অপরের বাড়িঘরে গিয়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। তারপর শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট-পাথর নিক্ষেপ। থেমে থেমে চলতে থাকে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলাগুলি। ভয়াবহ এই সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অনেক চেষ্টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

প্রায় ৩ ঘন্টাব্যাপী থেমে থেমে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় ২জন গুলিবৃদ্ধ হওয়াসহ নারী ও শিশু নিয়ে উভয়পক্ষের ৩৫জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। এঘটনার প্রেক্ষিতে আজ শনিবার (১৩ই মার্চ) দুপুর ১টায় একপক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আর অন্যপক্ষ ও মামলা দায়েরর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে।

দিরাই থানার ওসি আশরাফুল ইসলাম ও ছাতক থানার ওসি নাজিম উদ্দিন পৃথক সংঘর্ষের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এই প্রতিবেদককে জানান- সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত শাহ মুলক (৪৫) এর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য আজ শনিবার (১৩ই মার্চ) দুপুরে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এঘটনার প্রেক্ষিতে উভয়পক্ষই থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে। বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

Leave a Reply

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone