শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ১১:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখরের সহযোগীতায় শ্রীপুরে হটলাইন টীমের যাত্রা শুরু ডোমার জোড়াবাড়ীতে বাবুই পাখিবাসা, কিচিকিছি শব্দে মুখোরিত পুরো এলাকা কলাপাড়ায় পাওনা টাকার শোক সইতে না পেরে মৃত্যু জয়পুরহাটে ২২ কেজি ওজনের গাঁজার গাছসহ বাবা-ছেলে আটক করোনা নিয়ন্ত্রণে স্বাস্থ্য খাতেরই চিকিৎসা প্রয়োজন…আ স ম রব মাগুরায় লকডাউনের দ্বীতিয় দিন প্রশাসন কঠোর তাহিরপুরে বোনকে ধর্ষনের চেষ্টা, লম্পট ভাই গ্রেফতার ঝিনাইদহে কঠোর লকডাউনেও মানুষের ঢিলেভাব সুনামগঞ্জে দুই হত্যা মামলায় ঘাতক স্বামী সহ হোটেল মালিক ও কর্মচারী গ্রেফতার মাগুরার সকল ইউনিয়নের জন্য উপজেলা পরিষদের ২০ টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ক্রয় 

Surfe.be - Banner advertising service

নীরব ঘাতক সীসা দূষণের বিস্তৃতি রোধে প্রয়োজন জরুরি ও মাল্টি-সেক্টরাল পদক্ষেপ

জি-নিউজবিডি২৪ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১
  • ১০ বার পঠিত

“সম্মিলিতভাবে, আমরা পারবো সীসা দূষণ রোধ করতে” এই প্রত্যয়ে, পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে ইউএসএআইডি, ওএকে ফাউন্ডেশন, সুইস এজেন্সি ফর ডেভলপমেন্ট অ্যান্ড কর্পোরেশন এসডিসির সহযোগিতায়, পিওর আর্থ বাংলাদেশ একটি ভার্চুয়াল কর্মশালার আয়োজন করে। ‘Advancing a Lead Pollution and Health Roadmap for Bangladesh’ শীর্ষক এই আয়োজনের উদ্দেশ্য ছিল সরকারি, বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, গবেষকসহ বিভিন্ন অংশীদারদের সীসা দূষণ রোধে একসাথে কাজ করার অহবান জানানো এবং যেসমস্ত উৎস থেকে সীসা দূষণ হয় সে সম্পর্কে গবেষণার আলোকে আলোচনা করা, এবং এর মাধ্যমে সামনের দিনগুলোতে যৌথভাবে সীসা দূষণ কমাতে দীকনির্দেশনামূলক পরিকল্পনা হাতে নেওয়া।

অনুষ্ঠানে আলোচকরা বিভিন্ন সুপারিশ করেছেন যার মধ্যে জোর দিয়ে বলেছেন যে সীসা দূষণ রোধে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে মাল্টি-সেক্টরাল পন্থায় কাজ করার বিষয়ে। এছাড়াও জাতীয় পর্যায়ে সীসা দূষণের উৎসের তালিকা তৈরি করা, বড় পরিসরে গবেষণা করা, এবং নির্দিষ্ট সময়-সীমা উল্লেখপূর্বক কার্যকরী পদক্ষেপ হাতে নেওয়া। সীসা নিয়ে যারা কাজ করেন তাদের স্বাস্থ্য ও পেশাগত ঝুঁকির বিষয়টিও তুলে ধরা হয়। রঙ্গক বা পিগমেন্ট হিসেবে লেড বা সীসা ক্রোমেট আমদানির বিষয়ে শিল্প মন্ত্রণালয় এবং বাণিজ্য মন্ত্রকের তদারকি প্রক্রিয়া বৃদ্ধি, এবং কার্যকর উপায়ে শিল্প বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ বিভিন্ন বিষয় উঠে আসে।

বাংলাদেশ হলো বিশ্বের অন্যতম একটি দেশ যা সীসা দূষণ দ্বারা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ। সীসা দূষণের শিকার হয়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যাওয়ার তালিকায় চতুর্থ অবস্থা রয়েছে বাংলাদেশ। দেশের ৩৬ মিলিয়ন শিশু সীসা দূষণের শিকার যাদের রক্তে সীসার পরিমাণ ৭.৫ মাইক্রোগ্রাম পার ডেসিলিটার যা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রস্তাবিত নিরাপদ মাত্রার চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ বেশি। এই পরিস্থিতি কে করোনা মহামারির সাথে তুলনা করে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জনাব আহমেদ শামিম আল রাজি, অতিরিক্ত সচিব, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয় বলেন যে, “করোনা এবং সীসা দূষণ হলো নীরব ঘাতক।

তিনি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে আশ্বাস দেন যে, দেশ থেকে সীসা দূষণ নির্মূল করা তার মন্ত্রণালয়ের অন্যতম প্রাধান্য। তিনি আরও বলেন, “পরিবেশ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে মূল ভূমিকা পালন করবে অন্যান্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রানালয়ের সহযোগিতায়। আমাদেরকে মাল্টি-সেক্টরাল পন্থা অবলম্বন করতে হবে সীসা দূষণ রোধে।” পুরনো ব্যাটারির অবৈধ ও অনিরাপদ পুনঃচক্রায়নকে অনানুষ্ঠানিক থেকে আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়ায় নিয়ে আসার কার্যকরী উপায় খুঁজে বের করার জন্য গবেষক ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো কে তিনি এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান। একইসাথে তিনি বলেন যে, “আমাদেরকে সীসা দূষিত লোকালয়গুলো খুঁজে বের করতে হবে যেখানে মানুষের স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে এবং সেগুলোকে পরিষ্কার করে পুনরায় নিরাপদ অবস্থায় নিয়ে যেতে হবে।

Surfe.be - Banner advertising service

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451