বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সিনোফার্মের আরও ৫০ লাখ ডোজ টিকা দেশে পৌঁছেছে অবশেষে কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য সুনামগঞ্জ সীমান্তে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে চোরাকারবারীরা: মদসহ ২ জন আটক মধুখালীতে কাঁচা রাস্তায় দুই গ্রামের মানুষের ভোগান্তি সাগর ও নদীতে ধরা পড়ছে ঝাঁকে-ঝাঁকে ইলিশ তালেবানের সমর্থনে বোরকা পরে মিছিল করলেন আফগান নারীরা ‘অতি জরুরি’ ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন জোরদারের দাবি প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বব্যাপী শেষ ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মৃত্যু-সংক্রমণ বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে বয়স্ক ও ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদের জন্য বুস্টার ডোজ তুরস্ককে অবিলম্বে সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ভীতি আর গুজবে করোনায় পরীক্ষায় অনিহা! গাংনীতে এক মাসে ৪৪ জনের মৃত্যু

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুর প্রতিনিধি :
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ৩৪ বার পঠিত

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার গাড়াডোব ও জোড়পুকুরিয়া গ্রাম। গ্রামের কবরস্থানে গিয়ে দেখা মেলে ৪৪ জনের কবর। মসজিদের মাইকে ভেসে আসা মৃত্যুর খবর গ্রামের মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে। এক জনের দাফন করে ফিরে আসতে না আসতেই আরেক জনের মৃত্যুর খবর! এতো মানুষের মৃত্যুর ঘটনা এটাই প্রথম। তাই সবার মাঝেই আতংক। তার পরও করোনা উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ থাকা মানুষের করোনা পরীক্ষা হচ্ছে না। নানা ধরনের গুজব, ভীতি আর অনীহায় করোনা পরীক্ষা থেকে দূরে আছেন গ্রামের মানুষ। ফলে, এতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে দাবী করেছেন সচেতন মহল।

জোড়পুকুরিয়া গ্রামের গ্রাম্য চিকিৎসক লিটন হোসেন জানান, প্রতিদিন অন্তত ৩০ জন মানুষ তার কাছে চিকিৎসার জন্য আসেন। এর মধ্যে বেশিরভাগই করোনা উপসর্গ। করোনা চেস্টের জন্য জোর তাগিদ দিয়েও কোন লাভ হচ্ছে না। জোড়পুকুরিয়া ও আশেপাশের গ্রামের প্রায় প্রতিটি বাড়ির মানুষেরই করোনা উপসর্গ আছে। পরীক্ষা করলে শতকরা ৮০ জনের করোনা পজিটিভ হবে। তিনি আরো জানান, গেল এক মাসে জোড়পুকুরিয়া গ্রামে যে ২৪ জন মৃত্যু বরণ করেছেন এদের মধ্যে ৮ করোনা আক্রান্ত ছিলেন। বাকিদের কেউ করোনা পরীক্ষা করেননি। পরীক্ষা করা গেলে হয়তো এদের মধ্যে বেশিরভাগ করোনা পজিটিভ পাওয়া যেতো। এতো কিছুর পরেও গ্রামের মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানা ও করোনা পরীক্ষার বিষয়ে নানা অজুহাত দেখিয়ে বিরত থাকছেন।

একই চিত্র গাড়াডোব গ্রামের। গাড়াডোব গ্রামে মারা যাওয়া ২১ জনের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত ছিলেন ১০ জন। বাকি যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের কারও করোনা পরীক্ষা হয়নি। গ্রামের কয়েকজন জানান, করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ও করোনা পরীক্ষা নিয়ে নানা ধরনের গুজবে ডুবে আছে গ্রামের বেশিরভাগ মানুষ। ফলে সর্দি, জ¦রসহ করোনার অন্যান্য উপসর্গ থাকা যখন কেউ অক্সিজেন সংকটে পড়ছেন তখন তাকে বাধ্য হয়ে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। অপরদিকে যারা বিভিন্ন রোগে ভুগছেন তাদেরকেই কেবল চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বাকিরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিতেই অভ্যস্থ।

গ্রামের মুদি ব্যবসায়ি আবু সুফিয়ান জানান, তিনি চলতি মাসের ৭ তারিখ করোনায় আক্রান্ত হন। করোনা পজেটিভ হবার পর নিজ বাড়িতে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। ২২ জুলাই অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় নেগেটিভ আসার পর থেকে দোকান খুলেছেন। দোকানে মালামাল নিতে আসা গৃহিণী পানছুরা খাতুন জানান, ২০ দিন ধরে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত তিনি। ছেলে সাইদ হোসেনেরও জ্বর। ছেলেটি জ্বর মাথায় নিয়েই পাট কাটতে গেছে।’ করোনা পরীক্ষা করিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে পানছুরা খাতুন বলেন, ‘করোনা পরীক্ষা করে কি গ্রামে এক ঘরে হব?। পল্লি চিকিৎসকের কাছে কয়েক রকমের ওষুধ খেয়ে ভালো হয়েছি।

মেহেরপুর সিভিল সার্জন ডাঃ নাসির উদ্দীন বলেন, ঠা-া কাশি যাদের হচ্ছে তারা যদি সচেতন হয় তাহলে অনেক নিয়ন্ত্রণ করা যায়। তাদেরকে হাসপাতালে আসতে হবে, প্রয়োজনে টেস্ট করতে হবে। পরীক্ষায় যদি কেউ পজিটিভ হন তাহলে তার সু চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করা সম্ভব। কিন্তু গোপন করলে তিনি যেমনি শারীরিকভাবে ক্ষতির শিকার হচ্ছেন তেমনি তার মাধ্যমে অন্য মানুষের শরীরেও ছড়িয়ে পড়ছে। তাই ভয় ভীতি উপেক্ষা করে পরীক্ষা ও চিকিৎসা নেওয়ার আহবান জানালেন তিনি।

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451