মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৩:৪১ অপরাহ্ন

নওগাঁর নিয়ামতপুরে আড়াই বছরে ৭ মামলায় অসহায় এক পরিবার

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ প্রতিনিধি ঃ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৭ আগস্ট, ২০২১
  • ২৫ বার পঠিত

নওগাঁর নিয়ামতপুরে মামলাবাজ ও প্রভাবশালী ব্যক্তি ও তার বংশধররা প্রতিপক্ষ একটি দরিদ্র ও অসহায় পরিবারের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা, হত্যার হুমকি ও বিভিন্নভাবে হয়রানি করে উচ্ছেদের পায়তারা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

আড়াই বছরে ওই পরিবারের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত ৭টি মামলা দায়ের করেছেন তারা। শুধু তাই নয় ভাড়াটিয়া লোকজন দিয়ে মারপিট, আবাদি জমিতে পানি না দেয়া, নলকূপের পানি ব্যবহার করতে না দেয়ারও নানা অভিযোগ উঠেছে। নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নের রসুলপুর হঠাৎপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। ওই গ্রামের রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের কাছে এই অভিযোগ করে কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, মামলার কারণে তিনি চরম হয়রানির শিকার হয়ে এখন পথে বসেছেন।

রফিকুল ইসলাম জানান, দেশ স্বাধীনের পর হতে আমার পিতা এই খাস জায়গায় বসবাস করে আসছিলেন। ১৯৭৬ সালে খাস সম্পত্তি চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করে নেয় আমার পিতা। আমার বাড়ির পূর্ব ও পশ্চিম পার্শ্বে দুটি খাস পকুর রয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত আমরা পুকুর পাড়ে বসবাসরত বাসিন্দারা মাছ চাষ করে আসছি। কিন্তু কয়েক বছর যাবত আমার গ্রামের জলসা পাড়ার মজি মোড়লের ছেলে আবদুল মান্নান, মহিবুল, মনিরুল, আবদুস সাত্তার ও তাদের ছেলেরা জোর পূর্বক সেই দুটি পুকুর দখলের চেষ্টা ও পাঁয়তারা চালাচ্ছে। এ নিয়ে তাদের সাথে ২০১৯ সাল থেকে চরম দ্বন্দ্ব চলে আসছে।

২০১৯ সাল থেকে এখন পর্যন্ত তারা আমার ও আমার পরিবারের উপর মাছ মারা ও গাছ কাটার মিথ্যে ৭টি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। এমনকি কোন কারণ ছাড়াই তারা আমার ও আমার পরিবারকে প্রান নাশের হুমকি-ধামকী দিয়ে আসছে। মিথ্যে মামলায় আমাকে কয়েকবার জেল হাজতে পর্যন্ত যেতে হয়েছে। বার বার আদালতে হাজিরা দিতে দিতে আমি আর্থিকভাবে চরমভাবে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।

সম্প্রতি গত বুধবার রাত ১১টার সময় আমি বাড়ীর বাইরে থেকে বাড়ী এসে পাশের পুকুরে হাত-পা ধোয়ার জন্য গেলে তারা আমাকে মাছ মারার মিথ্যে অভিযোগ বিভিন্ন ভাবে গালি গালাজ ও এক পর্যায়ে ১০/১২জন এসে আমার বাড়ীতে হামলা চালায়। আমি বয়ে বাড়ীতে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেই। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

প্রতিবেশী ও রফিকুল ইসলামের ভাই নজরুল ইসলাম বলেন, আমার ভাইয়ের উপর ৭টি মিথ্যা মামলা দায়ের করে ঐ মামলাবাজরা। গত বুধবারে রাতে তারা বিনা কারণে আমার ভাইয়ের বাড়িতে হামলা করে, হাত-পা ভেংগে দেয়াসহ প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়।

রফিকুল ইসলামের স্ত্রী রুবিনা বিবি বলেন, আমাদের উচ্ছেদের জন্য তারা বিভিন্নভাবে হয়রানী করছে। মিথ্যা মামলা দিয়েও যখন হচ্ছে না তখন নলকূপের পানিও খেতে দিচ্ছে না। সব জায়গায় সরকারীভাবে খাবার পানির জন্য মর্টার দেয়া হলেও আমাদের এখানে দিচ্ছে না। তাদের পিছনে স্থানীয় মেম্বার যিনি বর্তমানে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন তিনি আছেন।

প্রতিবেশী মহসিন আলীর ছেলে জহিরুল ইসলাম বলেন, আমি দেখলাম বুধবার রাতে কারা যেন রফিকুল ইসলামের বাড়িতে চিল্লাচিল্লি করছে। পুকুর কে পাবে আমার জানা নাই। তবে রফিকুল ভাই এর পরিবারের উপর তারা বিভিন্ন সময় হয়রানী করে।

নজরুল ইসলামের ছেলে আবদুর রহিম বলেন, আমরা পাশেই বসবাস করি। জলসা পাড়ার আবদুল মান্নান ও তার ভাই ভাতিজারা আমার চাচা রফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারকে মেরে ফেলা, হাত-পা ভেঙ্গে ফেলা, বাড়ী উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে আসছে। জোর করে পুকুর দখল করে নেয়ারও হুমকি দেয়।

নিয়ামতপুর থানার পরিদর্শক (ওসি) হুমায়ন কবির সাংবাদিকদের জানান, মামলা আদালতের বিষয়। সত্য না মিথ্যে তা আদালত বিচার করবে।

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451