সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৬:২৮ পূর্বাহ্ন

কালিয়াকৈরে ভাইয়ের নির্বাচনে পুলিশ ভাইয়ের প্রভাব, অন্য প্রার্থীরা আতঙ্কে

সাগর আহম্মেদ, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি (গাজীপুর) ঃ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২১
  • ৭ বার পঠিত

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বড় ভাইয়ের নির্বাচনে পাশ্বর্তী মির্জাপুর থানার দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই নির্বাচনী এলাকায় ঢুকে প্রভাব বিস্তার করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গত বুধবার রাতেও তাকে নির্বাচনী এলাকায় প্রচার-প্রচারণা করতে দেখা যায়। ওই পুলিশের নির্বাচনী প্রচারণা ও হুমকিতে আতঙ্কে আছেন অন্য প্রার্থীরা। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন স্থানীয় ভোটারা।

ওই এসআই হলেন- টাঙ্গাইলের মির্জাপুর থানাধীন দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আইয়ুব খান।

এলাকাবাসী ও প্রার্থীদের সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার চাপাইর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সাধারণ আসনে (মেম্বার) চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হচ্ছেন, বর্তমান ইউপি সদস্য ও টিউবয়েল প্রতীকে প্রার্থী আব্দুল মালেক, ফুটবল প্রতীকে পায়েল মিয়া, মোরগ প্রতীকে আব্দুর রউফ খান ও তার ভাতিজা তালা প্রতীকে আনোয়ার খান।

এদের মধ্যে মোরগ প্রতীকে আব্দুর রউফ খানের ছোট ভাই আইয়ুব খান। তিনি পাশ্বর্তী মির্জাপুরের দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। কিন্তু সুযোগ বুঝে নির্বাচনী এলাকায় ঢুকে বড় ভাইয়ের মোরগ প্রতীকে প্রচার-প্রচারণা ও উঠান বৈঠক করছেন। তার বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে ভোট কেনা, অন্য প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মী ও সমর্থকদের হুমকিসহ নানা ধরণের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

সরকারী লোক হয়ে আচরণ বিধি লঙ্গন করে নির্বাচনে এমন প্রভাব বিস্তার করায় আতঙ্কে আছেন অন্য তিন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় ভোটাররা। তবে ওই পুলিশ নির্বাচনী এলাকায় ঢুকে আর যেন প্রভাব বিস্তার না করতে পারেন সেদিকে সংশ্লিষ্টদের কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছেন সাধারন ভোটার ও প্রার্থীরা।

ওই পুলিশের চাচাত ভাই তালা প্রতীকে আনোয়ার খান জানান, তিনি পুলিশ হয়েও নির্বাচনী এলাকায় ঢুকে আমার চাচা মোরগ প্রতীকে আব্দুর রউফ খানের পক্ষে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, প্রতি সন্ধ্যায় আসেন এবং তিনি টাকা দিয়ে ভোটারদের কিনে নিচ্ছেন, দেখাচ্ছেন ভয়ভীতিও। ফুটবল প্রতীকে পায়েল মিয়া জানান, তিনি সরকারী লোক হয়ে কিভাবে আচরন বিধি লঙ্গন করছেন? এটা বুঝতে পারছি না।

বর্তমান ইউপি সদস্য ও টিউবয়েল প্রতীকে প্রার্থী আব্দুল মালেক জানান, তিনি একজন সরকারী লোক। কিন্তু তিনি নির্বাচনী এলাকায় ঢুকে প্রভাব বিস্তার করছেন। এছাড়া আমার কর্মী-সমর্থক হুমকি-দমকিসহ নানা ধরণের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন।

এ বিষয়ে দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আইয়ুব খান টাকা দিয়ে ভোট কেনার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, আমি ছুটি আছি। তবে নির্বাচনে কোনো প্রভাব বিস্তার করছি না।

মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হক ওই এসআইয়ের পক্ষে সাই দিয়ে বলেন, তার আতœীয়-স্বজন নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে। এজন্য তিনি যেতেই পারেন। তবে তার প্রভাব বিস্তারে আচরণ বিধি লঙ্গন হচ্ছে কিনা? জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা এএম শামসুজ্জামান জানান, বিষয়টি জানতে পেরে কালিয়াকৈর থানায় জানানো হয়েছে। তবে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451