শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

নির্মান কাজের সময় দুই বছর আগে শেষ হলেও অগ্রগতি নেই: ভোগান্তিতে ভুক্তভোগীরা

সাইদুর রহমান, বিশেষ প্রতিনিধি মাগুরা ঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১২ বার পঠিত

মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার পুর্ব শ্রীকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মান কাজে গাফলতির কারণে নতুন ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। প্রতিষ্ঠানের পুরনো ভবন ভেঙে নতুন ভবনের কাজ শুরু করায় শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হচ্ছে খোলা আকাশের নিচে, পার্শ্ববর্তী মেহগনি বাগিচায়, স্কুলের বারান্দায় এমন কি ক্লাব ঘরে। দুই বছরের অধিক সময় ধরে এভাবেই চলছে প্রতিষ্ঠানটি। অথচ নির্মান কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে।

খবর নিয়ে জানা যায়, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার শ্রীকোল ইউনিয়নের পূর্ব শ্রীকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৩৪ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়

এ স্কুলের একাডেমিক ভবন নির্মানর জন্য ৭৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা বরাদ্দের মাধ্যমে কুষ্টিয়ার মেসার্স ইউনিক ট্রেডার্স নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ঠিকাদারি দেয়া হয়। ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল দ্বিতল এ ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। নির্মান কাজের সময় সীমা বেধে দেয়া হয় ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি। এতদিনের কাজে শুধু পিলারই হয়েছে। ইতিমধ্যে রডে ধরেছে মরিচীকা। নতুন ভবন নির্মাণে প্রতিষ্ঠানটির তিনটি ভবনের দু’টি ভবনই ভাঙা হয়েছে। ফলে একটি মাত্র শ্রেণিকক্ষে গাদাগাদি করে চলছে শিক্ষা কার্যক্রম।

বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও স্হানীয়দের অভিযোগ, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তাকে এ বিষয়ে বারবার অবগত করার পরেও এখন পর্যন্ত কোন সমাধান হয়নি। বরং তাঁদের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন এলাকাবাসী। বারবার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শুরুর প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে তা হচ্ছেনা।

অপর দিকে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়টিতে রয়েছে একটি মাত্র ভবন। যার একটি অফিস কক্ষ এবং অপরটি শ্রেণিকক্ষ হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। শ্রেণিকক্ষের অভাবে শিক্ষার্থীদের খোলা আকাশের নিচে, বিদ্যালয়ের বারান্দায়, পার্শ্ববর্তী মেহগনি বাগিচা, ক্লাব ঘরে বছরের পর বছর কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান করানো হচ্ছে। বিদ্যালয়টিতে বর্তমানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২২০ জন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশ্বাস সালাহউদ্দিন বলেন, কাজের কোন অগ্রগতি দেখা যাচ্ছেনা। বিদ্যালয়টির শ্রেণী কক্ষ সংকটের কারণে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখিন হতে হচ্ছে। বিশেষ করে ছাত্র-ছাত্রীরা নিয়মিত ক্লাস করানো যাচ্ছেনা। বৃষ্টির রোদে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস নেওয়া সম্ভব হয়ে ওঠে না। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিয়ে খুবই কঠিন সময় পার করতে হচ্ছে। অতি দ্রুত নতুন ভবনের কাজ শেষ করার জোর দাবি জানান তিনি।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন বলেন, পূর্ব শ্রীকোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সমস্যা দীর্ঘদিনের। প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা খুবই সমস্যায় রয়েছে। তিনি বলেন,ম প্রায়ই উপজেলা মাসিক সমন্বয় সভায় স্কুলটির সমস্যার কথা বললেও কোন সমাধান হয়নি। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের গাফিলতি ও উপজেলা প্রকৌশলীর সঠিক তত্বাবধানের অভাবেই এমনটি হয়েছে বলে তিনি জানান।

সাব কন্ট্রাক্টর রিংকু বলেন, প্রতিষ্ঠানটিতে গাড়ি যাওয়ার পরিবেশ না থাকায় কাজটি বন্ধ ছিলো। আমরা কয়েকদিন আগে উপজেলা প্রকৌশলী অফিস থেকে সময় নিয়েছি। এ সপ্তাহ থেকে কাজ শুরু করবো।

উপজেলা প্রকৌশলী শাফিন সোয়েব বলেন, তার যোগদানের আগেই ২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল মেসার্স ইউনিক ট্রেডার্স নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি কাজ শেষ করার কথা থাকলেও যথা সময়ে কাজ শেষ করতে ব্যর্থ হয় প্রতিষ্ঠানটি। যথা সময়ে কাজটি শেষ না হওয়ায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে ২ দফা চিঠি দেয়া হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি সময়ের আবেদন করেছেন। নতুন ইট উঠলেই কাজ শুরু করবেন বলে তারা জানিয়েছেন। এরপরেও কাজ না হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। নতুন ইট অনেক আগেই উঠেছে অথচ কাজ শুরুর কোন লক্ষন নেই।

Surfe.be - Banner advertising service




নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

<a href=”https://surfe.be/ext/446180″ target=”_blank”><img src=”https://static.surfe.be/images/banners/en/240x400_1.gif” alt=”Surfe.be – Banner advertising service”></a>

via Imgflip

Surfe.be - Banner advertising service

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451