মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ০৮:০২ পূর্বাহ্ন

Surfe.be - Banner advertising service

নামের পাশে লুচি থাকলেই ফ্রিতে খাওয়া যাবে পিৎজা

ক্রীড়া ডেস্ক ঃ
  • Update Time : বুধবার, ৩ আগস্ট, ২০২২

জার্মানিকে উইমেন্স ইউরোর ফাইনালে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে ৫৬ বছরের শিরোপা খরা ঘুচিয়েছে ইংল্যান্ড। আর তাতে উৎসবে মেতে উঠেছে ইংলিশ সমর্থকরা। কেউ কেউ তো আবার বিখ্যাত পিৎজার ব্র্যান্ড ‘ডোমিনোজ পিৎজার দোকানের নাম বদলে রেখেছেন সদ্য ইউরোজয়ী ফুটবলারের নামে। সঙ্গে সমর্থকদের দিয়েছেন এক চমকপ্রদ অফার। এমন ঘটনা ঘটেছে ইংল্যান্ডের হেডিংলিতে।

গত বছরের জুলাইয়ে ইংল্যান্ডের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইউরোর ফাইনালে ইতালির বিপক্ষে হেরে নিজ দেশের সমর্থকদের হতাশ করেছিল হ্যারি কেইনরা। তবে এক বছর পর, মেয়েদের ইউরোর ফাইনালে ওয়েম্বলি থেকে খালি হাতে ফিরে যেতে হয়নি সমর্থকদের। জার্মানির মেয়েদের বিপক্ষে জয়সূচক গোল করে জার্সি আকাশে উড়িয়ে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন ক্লোয়ে কেলি। সে উৎসব ছড়িয়ে পড়ে স্টেডিয়ামের গ্যালারিসহ পুরো নগরীতে। ঈদ আনন্দে মেতে ওঠে ইংলিশ সমর্থকরা।

তাদের উৎসবের শুরুটা হয়েছিল অবশ্য সেমিফাইনালেই। গত ২৭ জুলাই শেষ চারের লড়াইয়ে সুইডেনকে ৪-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে পা রেখেছিল ইংল্যান্ডের মেয়েরা। গোল উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন দলের ডিফেন্ডার লুচি ব্রোঞ্জও। নিজে একটি গোল করার পাশাপাশি সতীর্থকে সহায়তা করেছেন একটি গোল করতে।তার এমন পারফরম্যান্সে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়েন হেডিংলির এক পিৎজা দোকানের মালিক। আমেরিকার বিখ্যাত পিৎজার ব্র্যান্ড ‘ডোমিনোজ পিৎজা’র নাম বদলে দোকানের নাম রাখেন লুচির নামে। একই সঙ্গে ঘোষণা দেন, লুচি নামের যে কেউ এখানে ফ্রিতে খেতে পারবেন পিৎজা। যদিও সে সময় আসরের ফাইনাল পর্যন্ত এমন অফারের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিলেন তিনি।

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, ইউরোতে পুরো ইংল্যান্ড দল অসাধারণ নৈপুণ্যে দেখিয়েছে। কিন্তু শুধু লুচিকে নিয়ে কেন ওই দোকান মালিকের এত উচ্ছ্বাস? ঘটনাটা আরও এক যুগ আগের। ২০১০ সালে লুচি ছিলেন লিডস মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তখন হেডিংলির ওই ডমিনোজ পিৎজার দোকানে কাজ করতেন তিনি। সে জীবন পেরিয়ে পরবর্তী সময়ে তিনি দাপিয়ে বেড়িয়েছেন ফুটবল মাঠে।

এভারটন, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটির মাতিয়ে এখন খেলছেন স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনায়।অন্যদিকে ইংল্যান্ডের বয়সভিত্তিক দল ছাপিয়ে ২০১৩ সালে তিনি জায়গা করে নেন মূল দলে। থ্রি লায়ন্সের জার্সিতে ৯ বছরের মাথায় সাক্ষী হন এক অনন্য ইতিহাসের। ১৯৬৬ সালে ফিফা বিশ্বকাপ জয়ের পর, গত ৫৬ বছর ধরে আর কোনো বড় ট্রফি জয়ের রেকর্ড ছিল না ইংল্যান্ডের। সে আক্ষেপ লুচিরা ঘুচিয়েছেন ২০২২ সালে এসে। পুরনো কর্মীর এমন অবদানকে তাই অন্যরকমভাবেই স্বীকৃতি দিল পিৎজা দোকানের মালিক।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone