শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে মূল্যস্ফীতি চরমে

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক ঃ
  • Update Time : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

করোনার ধকল কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই বিশ্ব অর্থনীতির জন্য বড় ধাক্কা হয়ে এসেছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মূল্যস্ফীতি চরমে। জুনে যুক্তরাষ্ট্র এবং জুলাইয়ে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশ সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতির সাক্ষী হয়েছে। ইউরোজোন অঞ্চলে মূল্যস্ফীতির নতুন রেকর্ড হচ্ছে প্রায় প্রতিদিনই। খাদ্য-বাসা ভাড়া থেকে শুরু করে সব পণ্যেরই দাম উর্ধ্বমুখী।

পরিস্থিতি সামাল দিতে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেক দেশই বেছে নিয়েছে কঠোর মুদ্রানীতি, বাড়িয়েছে সুদহার। অর্থনীতিবিদদের আশঙ্কা, সুদের হার বাড়িয়ে সুবিধা করা যাবে না।

এদিকে বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে জার্মানির বাসিন্দাদের। তারা চাইছেন, রাশিয়ার সঙ্গে সরবরাহ চুক্তি পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে পরিস্থিতিকে স্বাভাবিক করা হোক।

এক ব্যবসায়ী জানান, বাড়তি টাকা কোথায় পাবো। সবকিছুর দাম নাগালের বাইরে। শুধু খাদ্যেরই নয়, পানি-বিদ্যুৎ সবকিছুর দাম বেশি। এক সপ্তাহের জন্য খাবার কিনতে যেখানে আমার খরচ হতো ৫০ ইউরো, এখন সেখানে গুণতে হচ্ছে ৭০। আমার মতে, রাশিয়ার সঙ্গে সরবরাহ চুক্তি আবারও চালু করা উচিত।

জুলাইয়ে জার্মানির মুদ্রাস্ফীতি পৌঁছেছে সাত দশমিক ছয় শতাংশে। জার্মানিসহ মূল্যস্ফীতির চাপে ধুঁকছে পুরো ইউরোপ। গত ২৫ বছরে সর্বোচ্চ ৮ দশমিক ৯ শতাংশ মূল্যস্ফীতির মুখে পড়েছে ইউরোজোনভুক্ত ১৯ দেশ।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি দেখা গেছে স্পেনে। দেশটিতে ৩৮ বছর পর জুলাইয়ে দেশটির মূল্যস্ফীতির হার ছিলো ১০ দশমিক ৮ শতাংশ। যা এক মাস আগেও ছিলো ১০ দশমিক ২ শতাংশ।

এদিকে খাদ্য ও জ্বালানির দাম বাড়ায় ৪০ বছরে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতি দেখেছে যুক্তরাজ্য। জুলাইয়ে এর হার ছিলো ৯.৪ শতাংশ। আর ১৯৮১ সালের নভেম্বরের পর জুনে যুক্তরাষ্ট্রের মূল্যস্ফীতি বেড়ে দাঁড়ায় ৯ দশমিক ৩ শতাংশে। বর্তমান এই পরিস্থিতি সামাল দিতে অনেক দেশ পরিবর্তন এনেছে মুদ্রানীতিতে। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বাড়িয়েছে সুদহার। তবে এই কৌশল কাজে আসবে না, বরং যুক্তরাষ্ট্র অর্থনৈতিক মন্দার দিকে এগোচ্ছে-বলছেন অর্থনীতিবিদেরা।

কঠোর মুদ্রানীতিতে ইউরোপে কমছে শিল্পোৎপাদন, অর্থনীতিতে নেমে এসেছে স্থবিরতা। একই পরিস্থিতি চীন, কোরিয়া ও জাপানেও।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone