মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৩৫ অপরাহ্ন

শোকের মাস আগস্ট৭:বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে নবজাগরণ

ড. আসাদুজ্জামান খান ঃ
  • Update Time : সোমবার, ৮ আগস্ট, ২০২২

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ইস্পাত কঠিন নেতৃত্বে বাঙালি জাতির নবজাগরণ ঘটে। পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠী এবার বাধ্য হলো জাতীয় নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করতে। ১৯৭০ সালের ৭ ডিসেম্বর পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের নির্বাচনের দিন ঘোষণা করা হয়।

বঙ্গবন্ধু এবার তার দেশবাসীর উদ্দেশে ঐক্যের ডাক দিলেন। আসন্ন নির্বাচন উপলক্ষে তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে নিবেদন করলেন তার আহ্বান, ‘বন্ধুগণ, পাকিস্তান অর্জনের দীর্ঘ তেইশ বছর পর আগামী ৭ ডিসেম্বর এই প্রথম জাতীয় ভিত্তিতে জনগণের সরাসরি ভোটে দেশে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে।

আজ থেকে চব্বিশ বছর আগে স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে মাথা তুলে দাঁড়াবার রঙিন আশায় বুক বেধে এমনি করেই একদিন জনগণ ভোট দিয়েছিলেন পাকিস্তানের পক্ষে, কিন্তু দিন যেতে না যেতেই দেখেছেন পাকিস্তানের জন্মলগ্নে জনগণের দেয়া সুষ্পষ্ট ম্যান্ডেটের এদেশের এক শ্রেণীর নেতার বিশ্বাসঘাতকতার ফলে সব স্বপ্ন তাদের ভেঙে খান খান হয়ে গিয়েছে। কেবল বাংলার সাড়ে সাত কোটি মানুষই নয়, সারা পাকিস্তান নামক দেশের বার কোটি মানুষই আজ ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে নিজ দেশে পরবাসী।

পরাধীন আমলেও এ চেহারা এ দেশের মানুষের ছিল কিনা তা আপনারা বিচার করবেন। স্বাধীনতা উত্তর জীবনে বিগত তেইশটি বছর ধরে সীমাহীন অত্যাচার- নির্যতন, লাঞ্ছনা-গঞ্জনা, শোষণ ও বঞ্চনা এদেশের মানুষকে পোহাতে হয়েছে, তার সাক্ষী কেবল আমি বা আমার দলই নয়, আপনারাও।

বিগত দুই যুগের তিক্ত অভিজ্ঞতার পর নির্বাচনের মাধ্যমেই জনগণের মতামত নিয়ে পাকিস্তানের বুকে শোষণহীন, ইনসাফের সমাজ প্রতিষ্ঠার উপযোগী একটি শাসনতন্ত্র প্রণয়নের যে সুযোগ আজ এসেছে, তার যথাযথ সদ্ব্যবহার ও প্রয়োগের ওপরই এদেশের আপামর জনসাধারণের ভবিষ্যৎ নির্ভরশীল।

আমার সংগ্রামী জীবনের স্বল্প এ সাধনার আলোকে বিচার করে নিশ্চিতই আজ আমি বুঝতে পারছি ভাগ্যাহত বাংলার, এদেশের আপামর সাধারণ মানুষের চাওয়া-পাওয়ার বাসনাকে সার্থক রূপ দেয়ার যে বিরাট গুরুদায়িত্ব আজ আমার সামনে, সে দায়িত্ব আজ আমাকেই স্কন্ধে তুলে নিতে হচ্ছে।

এদেশের ভাগ্যাহত মানুষের ভাগ্য প্রণয়নের দায়িত্ব বাংলার মাটি হতে অঙ্কুরিত আওয়ামী লীগকেই গ্রহণ করতে হবে। আমি ও আমার দল সে দায়িত্ব গ্রহণে সম্পূর্ণ প্রস্তুত, কেবল জনগণের দোয়া আর শুভেচ্ছা যা আমার এবারের চলার পথে একমাত্র পাথেয়। নিজের জীবনের বিনিময়ে যদি এদেশের ভাবী নাগরিকদের জীবনকে কণ্টকমুক্ত করে যেতে পারি, তাহলেই আমার সংগ্রাম সার্থক মনে করব।

বন্ধুগণ, ক্ষমতার প্রত্যাশী আমি নই, তবে শক্তির প্রত্যাশী আমি বটে। কায়েমী স্বার্থ সম্পন্ন মহলের হাত থেকে দেশবাসীর স্বার্থ ছিনিয়ে আনতে শক্তি আমরা চাই-ই-চাই। সে শক্তি জোগাতে পারে কেবলই জনগণ। বাংলার মীর জাফরদের সম্পর্কে আমি আপনাদের সজাগ করে দিয়ে এই কথায় বলতে চাই যে, তেইশটি বছরের অত্যাচার, অবিচার, শোষণ ও শাসনে বাংলার মানুষ আজ নিঃস্ব, সর্বহারা। ক্ষুধায় তাদের অন্ন নেই, পরনে বস্ত্র নেই, নেই সংস্থান, নেই বাসস্থান।

বাংলার অতীত আজ সুপ্ত, বর্তমান অনিশ্চিত, ভবিষ্যৎ অন্ধকার। জাতির এহেন দুর্দিনে বাংলার ভবিষ্যৎ সন্তানদের বাঁচাবার দায়িত্ব আপনারা আমাকে ও আওয়ামী লীগকে দেন তাহলে এদেশের কৃষক, শ্রমিক, ছাত্র, মধ্যবিত্ত, যারা আজ সর্বস্ব হারিয়ে রিক্ত ও শূন্যহস্ত, তাদের মুখে ইনশাল্লাহ আমরা হাসি ফোটাতে পারব। এ বিশ্বাস আমাদের আছে।

গড্ডালিকা প্রবাহে গা ঢেলে দিয়ে আজ যারা ঘুমিয়ে আছেন তাদেরকে ডাক দিয়ে কেবল বলে যেতে চাই জাগো বাঙালি জাগো। তোমাদের জাগরণেই এদেশের বার কোটি মানুষের মুক্তি। সামন্ত নেতৃত্ব লাঞ্ছিত পশ্চিম পাকিস্তানের আপামর মানুষও আজ তোমাদের দিকেই তাকিয়ে আছে। তোমরা তাদের নিরাশ কর না।’
বঙ্গবন্ধুর এই আহ্বান সারাদেশে আলোড়ন তোলে। নির্বাচনের ডামাডোল বেজে ওঠে দেশ জুড়ে। জুলফিকার আলী ভুট্টোর পিপলস পার্টি, মুসলিম লীগসহ অন্যান্য দল নির্বাচনী প্রচারে নেমে পড়ে।

বঙ্গবন্ধুর ক্যারিসম্যাটিক নেতৃত্ব এবং প্রজ্ঞায় তার দল পুরো দেশজুড়ে নতুনের আগমন বার্তা ছড়িয়ে দেয়। দেশের জনগণ গণতন্ত্র পাওয়ার আশায় উন্মুখ হয়ে ওঠে। বঙ্গবন্ধু দিনরাত দেশের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্তে ছুটে চলেন অবিরাম। তার ভাষণ শোনার জন্য মানুষের বাঁধ ভাঙা ¯্রােত মিশে যায় পদ্মা, মেঘনা, যমুনার জলে, দেশের আকাশে বাতাশে সর্বত্র। কবি অসীম সাহার কবিতার ক’টি চরণ-
‘যতোদিন এই দেশ নদী আছে
সেতো বয়ে চলবেই।
এই বাংলার আকাশ বাতাশ
মুজিবের কথা বলবেই।’
লেখক ঃ-ড. আসাদুজ্জামান খান

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone