সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:০২ পূর্বাহ্ন

ছাত‌কে ভু‌মি অ‌ফি‌সের সার্ভেয়ারের ঘুষ লেন‌দে‌নের ভিডিও ভাইরাল

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতি‌নি‌ধি,
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ঘুষ ছাড়া কোনো কাজ হ‌চ্ছে না সুনামগ‌ঞ্জের ছাত‌ক উপজেলার সহকারী ক‌মিশনার (ভূমি) অ‌ফি‌সের। এ অ‌ফি‌সে অনিয়ম, ঘুস, দুর্নীতি, হয়রানি, জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে প্রধান কতা এ‌সিল‌্যান্ড, সা‌ভেয়ার এ‌ডি এম রুহুল আ‌মি‌ন ও অ‌ফিস সহকা‌রি সত‌্যবাবুর বিরুদ্ধে অবা‌ধে চল‌ছে ঘুস লেন‌দেনের অ‌ভি‌যোগ।

এ অ‌ফি‌সে সা‌ভেয়ার এ‌,ডি এম রুহুল আ‌মিনের মাধ‌্যমে অ‌ফি‌সে ব‌সে প্রতারনা, জা‌লিয়া‌তি, অ‌নিয়ম, দুনী‌তি, জায়গা জ‌মি ভোগ দখ‌লের প‌ক্ষে রি‌পোট দেয়ার কথা ব‌লে একজন জ‌নৈক ম‌হিলার স‌ঙ্গে ভু‌মি অ‌ফি‌সে ব‌সে ঘুষ লেন‌দে‌নের দু দফা ভি‌ডিও ব‌্যাপক ভাইরাল হ‌য়ে‌ছে।

এ ভু‌মি অ‌ফিস সহকা‌রি সত‌্যবাবুসহ প্রধান কর্মকতা কমচা‌রি‌দের বিরু‌দ্ধে নানা অ‌নিয়ম,দুনী‌তি, ঘুষ লেন‌দে‌নের অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে। তারা ঘুষ লেন‌দে‌নের ভি‌ডিওটি ধামাচাপা দি‌য়ে ব‌্যাপক তৎপরতা চা‌লি‌য়ে যা‌চ্ছেন এক‌টি সি‌ন্ডি‌কেট চত্রু। ভু‌মি অ‌ফি‌স বাই‌রে লেখা দুনী‌তি মুক্ত অ‌ফি‌সে,ভিত‌রে চল‌ছে ঘু‌ষের বা‌নি‌জ্যিক। এখা‌নে ওপেন ঘুস কে‌লেংকারী ঘটনার স্বগরা‌জ্যে প‌রিনত হ‌চ্ছে।

তাদের ঘুষ নি‌য়ে কেউ প্রতিবাদ কর‌লে তারা
‌নিজ ভুয়া সিল, ভুয়া জাল দ‌লিল, ভুয়া পরচা কাগজ পত্র তৈ‌রি প্রতিবাদকারী‌দের বিরু‌দ্ধে একা‌ধিক মামলা দি‌য়ে হযরা‌নি করার অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে।

উপ‌জেলার ১৩ ইউ‌পি এক‌টি পৌরসভা প্রায় তিনশ`৫‌টি মৌজার রেকর্ড পত্র সাম‌নে রেখেই প‌ক্ষে বিপ‌ক্ষে স‌রেজ‌মিন রি‌পোট দেয়ার কথা ব‌লে প্রতি‌দিন লাখ লাখ টাকার প্রকা‌শ্যে ঘুষ হা‌তি‌য়ে নেয়ার একা‌ধিক অ‌ভি‌যোগ র‌য়ে‌ছে এ‌দের বিরু‌দ্ধে।
জানা যায়,গত ২৭ জুলাই,সুনামগঞ্জ জেলা অ‌তি‌রিক্ত ম‌্যা‌জি‌ষ্ট্রেট আদালত থে‌কে ৯০৩ স্বারক মু‌লে প্রাপ্ত প‌ত্রে পৃষ্টা‌দে‌শে গত ২৭ আগষ্ট আ‌দেশের প‌রি‌প্রেক্ষি‌তে সরকারী সাভেয়ার এ‌,ডি,এম রুহুল আমিন উপ‌জেলার ব্রাক্ষনজু‌লিয়া মৌজায় স‌রেজ‌মি‌নে ঘটনাস্থলে যান। সেখা‌নে গি‌য়ে বাদীনীর মহিলা বা‌ড়ি ঘর, জায়গা জ‌মি দীঘ‌দিন ধ‌রে তার নিজ ভোগ দখলেই রয়েছে। তাও তিনি টাকা না দিলে প্রতিবেদন তার বিপক্ষে দেবেন ব‌লে ভয় দে‌খি‌য়ে তা‌কে জি‌ম্মি ক‌রে টাকা আদায় ক‌রেন সা‌র্ভেয়ার।

পরে গত ১ সেপ্টেম্বর সময় দুপুর ১.১৪ মিনিট সা‌র্ভেয়ার এডিএম রুহল আ‌মিনের ছাতকস্থল এ‌সিল‌্যান্ড অ‌ফি‌সে সরাস‌রি ঘু‌ষের টাকা ম‌হিলা তার নিজ হা‌তে ঘুষ লেনদেন ক‌রেন ১০ হাজার টাকা।

পরবর্তীতে গত ৬ সেপ্টেম্বর দুপুর বারটা থেকে বিকাল তিনটার ম‌ধ্যে আবা‌রো ও ঘু‌ষের টাকা একই ম‌হিলা লেনদেন ক‌রেন ১০ হাজার টাকা তার কাছ থে‌কে নেয়ার পর সা‌র্ভেয়ার রুহুল আ‌মিন ঐ ম‌হিলা‌কে স্বাক্ষর সিল ছাড়াই এক‌টি কাগজ তার হা‌তে তুলে দেয়। বাদীনী ম‌হিলা তার প‌ক্ষে রি‌পোটের নমুনার কাগজ নি‌য়ে সুনামগঞ্জ আদাল‌তে যান। সুনামগঞ্জ থে‌কে প‌রের দিন আবো‌রো ও ভু‌মি একই ম‌হিলা এ‌সে তার কা‌ছে পাওনা ঘু‌ষের বাকী ৫ হাজার টাকা প‌রি‌শোধ করার পর তার প‌ক্ষে রি‌পো‌টের কাগ‌জে স্বাক্ষর সিল মে‌রে দেন সা‌র্ভেয়ার রুহল আ‌মিন।

এসময় ঘু‌ষের টাকার লেন‌দেন নি‌য়ে অ‌ফিস ক‌ক্ষের ভি‌ডিও তোলা নি‌য়ে হা‌তাহা‌তির ঘটনা ঘ‌টে। প‌রে এ ঘটনা‌টি কাউ‌কে না জা‌নি‌য়ে গোপ‌নে ধামাচাপা দেন অ‌ফিস সহকা‌রি সত‌্যবাবু।

জানা যায়, উপ‌জেলার ছৈলাআফজলাবাদ ইউ‌পির ব্রাক্ষনজু‌লিয়া মৌজার এস এ খ‌তিয়ান ৫৬৬ ও নামজা‌রি খ‌তিয়ান ৮৩০ শ্রেনী আমন ও বা‌ড়ি রকম না‌লিশা ভূ‌মি ভোগ দখল ক‌রে আ‌ছেন জ‌নৈক জহুরা বেগম ও তার স্বামী আ‌জিজুর রহমানের প্রায় ৩৬ শতক জ‌মি জায়গা তার দখলে থাকার সত‌্যতা রি‌পোট দি‌তে দু দফা তা‌কে জি‌ন্মি ক‌রে অ‌ফিস সহকা‌রি সত‌্যবাবু, সার্ভেয়ার এ‌ডিএম রুহুল আ‌মিন মাধ‌্যমে তিন দফা অ‌ফিস ক‌ক্ষে ব‌সে প্রকা‌শ্যে ঘুষ লেন‌দে‌নের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব‌্যাপক ভাইরাল হয়ে‌ছে।

ঘুষের ভিডিওর বিষয়ে জানতে চাইলে সা‌র্ভেয়ার এ‌ডি এম রুহুল আ‌মিন ব‌লেন কে বার কারা ঘুষ দেওয়ার সময় ভিডিও করছে তার জানা নেই। এ ধরনের কোনো ভিডিও তার নেই। পরে ভিডিওটি দেখালে তিনি নিশ্চিত করেন ভিডিওর ব্যক্তিটি তিনি নি‌জেই। কি‌সের জন‌্য ঘুষের টাকা লেনদেনের ভিডিওর বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি এ‌ডি এম রুহুল আ‌মিন। এ সংবাদ পেয়েই অ‌ফি‌সে প্রধান কর্তা এ‌সিল‌্যান্ড ইসলাম উ‌দ্দিন তার অ‌ফি‌সে ঘুসষখোর সা‌রভেয়ার রুহুল আ‌মি‌নের বিরু‌দ্ধে আইনাগত ব‌্যবস্থা নেয়ার প্রস্ত‌তি চল‌ছে । এ ঘটনায় উপ‌জেলা জু‌ড়েই ব‌্যাপক সমা‌লোচনার ঝড় বই‌ছে।
এ অ‌ফি‌সে ঘু‌ষের বি‌নিময় শভুয়া জালিয়াতির মাধ্যমে দলিল তৈরি করে একে অপ‌রে জায়গা জ‌মির স‌ঠিক কাগজ পত্র ছাড়াই হ‌চ্ছে অবা‌ধে নামজা‌রি হচ্ছে। সেবা নিতে আসা শ`শ মানুষরা অ‌ভি‌যোগ ক‌রে ব‌লেন দুনী‌তির স্বর্গরা‌জ্যে প‌রিনত হ‌চ্ছে ছাতকে প্রতি‌টি ভু‌মি অ‌ফিস, জা‌হিদপুর, পীরপুর, জগঝাপ ও ছাতক সদর (ভুমি ) তহ‌সিলদার‌দের বিরু‌দ্ধে র‌য়ে‌ছে আ‌গে টাকা প‌রে কাজ। এভা‌বে চল‌ছে ভু‌মি অ‌ফি‌সের কাজ কারবার। একটা নামজারিতে এ অফিস ১ হাজার ১৫০ টাকার বিপরীতে ১০-১৫ হাজার টাকা করেও নিচ্ছেন।

এদের কাছে মানুষ জিম্মি হয়ে পড়ছে।অনলাই‌নের আ‌বেদন ফিস ৫শ`টাকা আদায় ক‌রেন। এসব বিষয়ে গত মঙ্গলবার সকা‌লে উপজেলা ভূমি অফিসে গিয়ে আরও চাঞ্চল্যকর ঘুষের তথ্য মিলছে। এসব তথ‌্য প্রতিনি‌ধিরা সংগ্রহ কর‌ছেন। ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার, তহসিলদার, অফিস সহকারী, পিয়ন সবাই ঘুষ বাণিজ্যের সঙ্গে সরাসরি জড়িত। নামজারি, মিস কেস, মিস আপিল, সার্ভে রিপোর্ট, চান্দিনা ভিটা, এমপি কেস, খাস জমি বন্দবস্তি, ভিপি খাজনা দাখিলা থেকে শুরু করে সবকিছুতেই ঘুসের কারবার করেন তারা।

এব‌্যাপারে এ‌সিল‌্যান্ড ইসলাম উ‌দ্দিন তার বিরু‌দ্ধে আনীত অ‌ভি‌যোগ অস্বীকার ক‌রে ব‌লেন,
তার সা‌র্ভেয়ার ঘুষ লেন‌দেনের ভিডিওটি তি‌নি দে‌খে‌ছে, যা তার অফিসের জন্য অত্যন্ত লজ্জাষ্কর। ত‌বে বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone