সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

বোরহানউদ্দিন ভূমি অফিসের কানুনগো আনোয়ার হোসেন বিরুদ্ধে ঘুষ আর দূর্নীতির বিস্তর অভিযোগ

বোরহানউদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২২ নভেম্বর, ২০২২

ভোলা বোরহানউদ্দিনে উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো মো.আনোয়ার হোসেন এর বিরুদ্ধে ঘুষ অনিয়ম আর দূর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে প্রতি নামজারি কেইসে ৭ হতে ৮ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তদন্তের নামে বাদী বিবাদী উভয়পক্ষ কে হয়রানী করার বিস্তর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তিনি যে পক্ষ হতে মোটা অংকের টাকা পায় সে পক্ষের অনুকূলেই তদন্ত রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তার বাড়ী ভোলা সদরে হওয়ায় প্রভাব কাটাচ্ছে ভুক্তভোগীদের সাথে। তার ভয়ে মুখ খুলতে ভয় পাচ্ছে ভুক্তভোগিরা।  
সূত্রমতে জানাযায়, বোরহানউদ্দিন ভুমি অফিসে কানুনগো মো: আনোয়ার হোসেন প্রায় দেড় বছর আগে যোগদান করেন এবং আসার পর থেকেই সে বোরহানউদ্দিন ভূমি অফিসকে দূর্নীতির এক মহা উৎসবে পরিনত করছেন। তিনি প্রতি নামজারী কেইসে ৭ হাজার হতে ৮ হাজার টাকা নেন। যদি নামজারী কেইসে সরকার পায় শুধু মাত্র ১১২০ টাকা। বাকী টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এ কানুনগো। তদন্তে বাদী বিবাদী উভয় পক্ষকে হয়রানীর করার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। যে পক্ষ হতে মোটা অংকের টাকা পায় সে পক্ষের অনুকূলেই রিপোর্ট দেয়ার বিস্তর অভিযোগ রয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, ভোলা বিজ্ঞ কোর্টে একটি ফৌজধারী মামলা করি। ওই মামলার তদন্তে আসেন কানুনগো মো. আনোয়ার হোসেন। উদয়পুর রাস্তার মাথায় ওই জমি আমার নামে এস.এ এবং বিএস খতিয়ান হয়েছে। আমার কাগজ পত্র অনুকূলে থাকায় কানুনগো আনোয়ার হোসেন বলেছেন কিছু টাকা দেন আপনার পক্ষে তদন্ত রিপোর্ট দিবো। এরপর প্রথমে ৫ হাজার এবং পরে ১২শত টাকা নেন এ কানুনগো। কিন্তু বিবাদী পক্ষ হতে মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাদের পক্ষে ভোলা কোর্টে তদন্ত রিপোর্ট পাঠিয়ে দেন। আমি উনাকে ধরলে আমার কাছ হতে নেয়া ঘুষের ৫ হাজার টাকা ফেরত দেয়। তবে সে আমার আরও ১২শত টাকা ফেরত দেয় নি। উনার মিথ্যা তদন্ত রিপোর্টের কারনে আমার মামলাটি খারিজ করে দেন বিজ্ঞ কোর্ট। উনার মিথ্যা রিপোর্টের কারনে আমি আর্থিক এবং মানসিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। এরকম দুর্নীতি বাজ ঘুষখোর কানুনগো পদে থাকলে প্রকৃত ভূমি মালিকরা পদে পদে চরম হয়রানীর শিকার হতে হবে। আর উনার বদনাম পুরো ভূমি সংশ্লিষ্টদের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। তাই তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানাচ্ছি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কে।      
কানুনগো মো: আনোয়ার হোসেন এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বোরহানউদ্দিন শাহবাজপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি মনিরুল ইসলাম জানান, এ কানুনগো আমার একটি এমপি মামলায় মিথ্যা রিপোর্টের কারনে আমাদের পরিবার মানসিক ও আর্থিক ক্ষতির শিকার হচ্ছি। সে পিয়নের মাধ্যমে আমার কাছ হতে ৫শত টাকা নিয়েছে। এরপরও আমার প্রতিপক্ষের কাছ হতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে মিথ্যা রিপোর্ট দিয়ে হয়রানী করেছেন। তিনি আরোও জানান, আমরা এসিল্যান্ড এর কাছে এ তদন্ত রিপোর্ট নিয়ে অভিযোগ করি এবং তিনি রিপোর্টে আপত্তি জানানোর পরামর্শ দেন।
উপজেলা ভূমি অফিসের কানুনগো মো: আনোয়ার হোসেন তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম এর তদন্ত রিপোর্টি ভুল হয়েছে তা আমি দু:খ প্রকাশ করেছি। তবে অন্যান্য অভিযোগ গুলো সঠিক নয়।

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone