বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:০৫ পূর্বাহ্ন

ইরানে হাইব্রিড যুদ্ধ চালাচ্ছে শত্রুরা: এ পর্যন্ত নিহত ২০০ জন

জি-নিউজবিডি২৪ডেস্ক ঃ
  • Update Time : রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২২

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, শত্রুরা এদেশের জাতীয় সংহতি নষ্ট করা এবং উন্নতি থামিয়ে দেয়ার অশুভ লক্ষ্যে ইরানের বিরুদ্ধে একটি হাইব্রিড যুদ্ধ শুরু করেছে। এটি আরো বলেছে, গত সেপ্টেম্বরে শত্রুর মদদে ইরানে সন্ত্রাসী ও বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীগুলো সহিংসতা ও নৈরাজ্য শুরু করার পর থেকে এ পর্যন্ত ২০০ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। 

শনিবার ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি প্রকাশ করে সাম্প্রতিক সহিংসতায় নিহত মানুষের পরিসংখ্যান তুলে ধরে। এতে বলা হয়, মুষ্টিমেয় কিছু দাঙ্গাবাজ দেশে নৈরাজ্য, সহিংসতা ও নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি করছে এবং তাদের অপতৎপরতার কারণে সন্ত্রাসী ও বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীগুলো ইরানে অনুপ্রবেশ করে নিরপরাধ মানুষের রক্ত ঝরানোর সুযোগ পাচ্ছে। 

২২ বছর বয়সি কুর্দি নারী মাহসা আমিনি ইরানের আইন অনুযায়ী হিজাব পরতে অস্বীকার করায় গত সেপ্টেম্বরে গ্রেফতার হন। এরপর ওই নারী পুলিশি হেফাজতে অসুস্থ হয়ে পড়ার পর হাসপাতালে মারা গেলে সুযোগ সন্ধানী কিছু মানুষ সহিংসতা শুরু করে এবং তারা বহিঃশক্তিগুলোর সুস্পষ্ট মদদ পায়। এরপর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এই প্রথম নিহতদের সংখ্যা ঘোষণা করা হলো। 

মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, নিহতদের মধ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর বহু সদস্য এবং সন্ত্রাসী হামলায় নিহত নিরপরাধ বেসামরিক নাগরিকরা রয়েছেন। এছাড়া, গত দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা নৈরাজ্যে দেশের সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনাগুলোর কয়েক ট্রিলিয়ন রিয়ালের ক্ষতি হয়েছে। 

মাহসা আমিনির মৃত্যুর পর শত্রুদের মদদে সহিংসতা সৃষ্টিকারীরা দাবি করতে থাকে যে, পুলিশি নির্যাতনে ওই নারীর মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু পরবর্তীতে পোস্ট-মর্টেম রিপোর্টে বলা হয়, শারীরিক অসুস্থতার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে।#

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: The It Zone
freelancerzone