বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন

অধ্যক্ষ ফুল মোহাম্মাদের বিরুদ্ধে ৩০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলা

আব্দুস সবুর তানোর
  • Update Time : বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২২

রাজশাহীর তানোর উপজেলার পাচন্দর ইউনিয়ন (ইউপির) কচুয়া আইডিয়াল কলেজের অধ্যাক্ষ ফুল মোহাম্মাদের বিরুদ্ধে ৩০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে একাধিক সুত্র থেকে নিশ্চিত হওয়া গেছে। মামলাটি করেন সিটি ব্যাংক থানোর শাখার ম্যানেজার কাফি।   এছাড়াও কলেজের নিয়োগসহ নানা বিষয়ে ৩০ লাখ টাকা দূর্নীতি করেছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। একজন অধ্যাক্ষের এমন কান্ডে চরম বিব্রত তার প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী শিক্ষকরা। এখবর ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভে ভাসছে উপজেলার সচেতন মহল।

জানা গেছে, বিগত ২০২০ সালের দিকে তানোর পৌর সদর ফুল মোহাম্মাদের নির্মানকৃত ভবনে সিটি ব্যাংকের শাখা খোলা হয়। চালুর পর থেকে অগ্রিম সিকিউরিটি ও ভাড়াসহ নানা ভাবে ৩০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় ফুল মোহম্মাদ। শুধু মাত্র এই অধ্যাক্ষের কারনেই সিটি ব্যাংকটি বন্ধ হয়ে যায় এবং অনেক গ্রাহকের টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যান ম্যানেজার আব্দুল্লাহ আল কাফি বলেও প্রচার রয়েছে। 

সুত্র মতে, তানোর থানা মোড়ের পশ্চিমে একতলা ভবনে বসবাস করতেন ফুল মোহাম্মাদ। ছাত্রাবাসের আড়ালে গোপনে গড়ে তুলেছিলেন কৃষি কলেজ। পরে জানাজানি হওয়ার পর বন্ধ রয়েছে। তার একতলা ভবনের সামনে কোটি টাকা ব্যয়ে অধ্যাক্ষ প্লাজা গড়ে তুলেছেন। যা সিটি ব্যাংক ও কলেজের দূর্নীতির টাকা বলেও একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেন।

স্থানীয়রা জানান, সিটি ব্যাংকের ম্যানেজার কাফিকে নানা ভাবে প্রলোভন দিয়ে ফুল মোহাম্মাদ জালিয়াতির মাধ্যমে ৩০ লাখ টাকার অধিক হাতিয়ে নিয়েছেন।  তিনি নিজেকে চতুর মনে করে এত টাকা লোপাট করে আলিশান ভবন নির্মান করেছেন। যা সদর বাসী সবাই জানে। আবার শুনছি কলেজে গোপনে নিয়োগসহ নানা ভাবে এই দূর্নীতি পরায়ন অধ্যাক্ষ ৩০ লাখ টাকা লোপাট করেছেন যা সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তার কলেজের কিছু শিক্ষক রা জানান, কলেজের অধ্যাক্ষ এর চেয়ে আর কোন পরিচয়ের দরকার হয়না। তিনি অত্যান্ত লোভী ও দূর্নীতিবাজ। সে বিশাল ভবন করছেন, কোথা থেকে আসে টাকা। কলেজের প্রধানের বেতনে যার পেট ভরে না, তাকে দুনিয়ার সব দিলেও ভরবে না। আমরাও চাই এসব লোভী শিক্ষকদের সাজা হওয়া দরকার। তিনি বর্তমানে ৬০ থেকে ৭০ লাখ টাকার দেনা নিয়ে ঘুরছেন। তার মধ্যে ৩০ লাখ টাকার আদালতে মামলা, বাকি ৩০ লাখ টাকা কলেজকে দিতেই হবে। কারন জায়গা মত তাকে ধরেছে। একজন প্রধানের বিরুদ্ধে টাকা জালিয়াতির মামলা হলে শিক্ষার কি অবস্থা ভেবে নিতে হবে।

সিটি ব্যাংকের ম্যানেজার কাফি জানান, তাকে কয়েকবার অবহিত করা হলে উল্টো আমাকেই নানা ভাবে হুমকি দেয়। তানোরে শাখা বন্ধ করে পালিয়ে আসতে বাধ্য করেছেন ফুল মোহাম্মাদ। আবার মানুষকে নানা ভাবে ভুল বুঝিয়ে বলত আমি নাকি গ্রাহকের টাকা লোপাট করেছি। আদালতে মামলা করা হয়েছে, তার পক্ষে কোন সঠিক কাগজপত্র দেখাতে পারে নি। আসা করছি অল্প সময়ের মধ্যে ফায়সালা হবে।

টাকা লোপাট কারী কচুয়া আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ ফুল মোহাম্মাদ মামলার বিষয়টি স্বীকার করে জানান, আদালতে জবাব দেওয়া হবে। আপনি ব্যাংকের ৩০ লাখ টাকার কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেন নি, আবার কলেজ থেকেও একই পরিমান টাকা আত্মসাৎ করেছেন জানতে চাইলে বেশ কিছুক্ষন নিরবে থেকে বলেন আমি নাকি এসব টাকায় বাড়ি করেছি, অথচ ব্যাংক থেকে ঋন নিয়ে বাড়ি নির্মান করেছি বলে এড়িয়ে যান। 

Surfe.be - Banner advertising service

https://www.facebook.com/gnewsbd24

More News Of This Category
<script async src="https://pagead2.googlesyndication.com/pagead/js/adsbygoogle.js?client=ca-pub-3423136311593782"
     crossorigin="anonymous"></script>
© All rights reserved © 2011 Live Media
কারিগরি সহযোগিতায়: মোঃ শাহরিয়ার হোসাইন
freelancerzone