রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৮:১৪ পূর্বাহ্ন

এ্যাড.শাহিদা রহমান রিংকু একজন অগ্রগামী নারী

জি-নিউজবিডি২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৫২ বার পঠিত

এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু, একজন আইনজীবী, নারী উদ্যোক্তা, সমাজ সেবিকা, মানবাধিকার নেত্রী, প্রযোজক, লেখিকা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও খ্যাতিমান রাজনীতিবিদ। তিনি সদা হাস্যউজ্জ্বল ও কোমল হৃদয়ের অধিকারী ব্যক্তিত্ব।

পিতাঃ মোহাম্মদ সাইদুর রহমান, মাতাঃ লুৎফা বেগম। তিনি ১৯৭৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারী ইংরেজী সনে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে তিনি স্থায়ীভাবে ঢাকায় বসবাস করে আসছেন। তাঁর গ্রামের বাড়ীঃ মুন্সীগঞ্জ জেলার রামপাল।

পারিবারিক পরিচয় ঃ এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু’র “বাবা” একজন বিশিষ্ট সমাজ সেবক, ব্যবসায়ী ও সনামধন্য ব্যক্তিত্ব। তার বাবা দীর্ঘদিন যাবৎ ঢাকায় বিভিন্ন স্থানে বসবাস করেন। পরবর্তীতে তিনি ৩৫ বছর পূর্বে ঢাকার সায়দাবাদে স্থায়ী বসবাস শুরু করেন। এখানেই তিনি একটি মসজিদ, মাদ্রাসা, সেবা প্রতিষ্ঠান ও একটি মহিলা মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর “মা” একজন সু-গৃহিণী। এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু’র ৩ বোন ও ২ ভাই। ভাই বোনদের মধ্যে তিনি জ্যেষ্ঠ।

প্রথম (তিনি) ঃ এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু। তিনি একজন আইনজীবী, একজন নারী উদ্যোক্তা, সমাজ সেবিকা, মানবাধিকার নেত্রী, প্রযোজক, লেখিকা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও খ্যাতিমান রাজনীতিবিদ। তিনি এস আর মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার।

দ্বিতীয় (বোন) ঃ নীলিমা রহমান ঝিংকু। তিনি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে এলএল.বি (অনার্স) শেষ করে দেশে ফিরে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন।

তৃতীয় (ভাই) ঃ মোঃ মনির হোসেন। তিনি তাঁর বাবার সার্বিক কাজে সহযোগিতা করেছেন। এছাড়া নিজের ব্যবসা পরিচালনা করেন।

চতুর্থ (বোন) ঃ এশা রহমান সীমা। তিনি সেন্টাল উইমেন্স ইউনিভার্সিটি থেকে মাস্টার্স শেষ করছেন।
পঞ্চম (ভাই) ঃ লুৎফর রহমান জ্যোতি। ও-লেভেল, এ-লেভেল ও নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ (ফাইন্যান্স) শেষ করে উচ্চ শিক্ষার জন্য নেদারল্যান্ডের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত আছেন।

কর্মজীবন ঃ এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু তাঁর কর্ম দক্ষতার মাধ্যমে অগ্রগামী নারী হিসেবে সমাজে অসামান্য অবদান রেখে যাচ্ছেন। নারী উদ্যোক্তা তৈরী করছেন। লেখিকা হিসেবে তিনি সমাজের নানান দিক তুলে ধরছেন। কখনও সৌখিনতার বসে পত্রিকায় বিজ্ঞাপনে তাকে মডেলিং করতে দেখা যায়। আইনী পরামর্শ ও সহায়তা প্রদান করছেন।

মানবাধিকার নেতৃত্বের মাধ্যমে মানুষের অধিকার আদায়ের চেষ্টা করেন। কবিতা লেখা, সৃজনশীল দৃপ্ত অঙ্গীকার নিয়ে প্রতিভাময়ী উদীয়মান নারীদের যৌথ উদ্যোগে গড়ে তুলেছেন, এস আর এন্টারপ্রাইজ নামের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান। তিনি একজন আধুনিক মুক্ত চিন্তা-চেতনার অধিকারী এ প্রজন্মের নিষ্ঠাবান কর্মঠ ব্যক্তিত্বময়ী নারী উদ্যোক্তা। রাজনৈতিক অঙ্গনেও তাঁর ব্যাপক অবদান রয়েছে।

রাজনৈতিক জীবন ঃ রাজনৈতিক অঙ্গনে এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু’র দেওয়া তথ্য ঘেটে পাওয়া যায় যে, ছাত্রলীগের রাজনীতির মধ্যদিয়ে তাঁর রাজনীতি জীবনের হাতে খড়ি। তিনি ঢাকার সায়দাবাদের আর কে চৌধুরী ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি। এছাড়াও ডেমরা থানা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদিকা পদে নিযুক্ত ছিলেন।

এরপর ২০০৩ সালে তিনি লন্ডনে চলে যান। প্রবাসে থাকাকালীন বঙ্গবন্ধু ব্যারিস্টার এন্ড স্টুডেন্ট ব্যারিস্টার কাউন্সিলের মানবাধিকার সম্পাদিকা নিযুক্ত হন। তিনি জানান, তৎকালীন সভাপতি ছিলেন, ব্যারিস্টার নজরুল ইসলাম ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক ছিলেন, ব্যারিস্টার মোহাম্মদ রাফিকুল ইসলাম মিল্টন।

পরবর্তীতে পারিবারিক বিভিন্ন জটিলতার কারণে কিছু দিন রাজনৈতিক অঙ্গনে নীরব ভূমিকা পালন করেন তিনি। পরে ২০১০ সালে তাঁকে জাতীয় পার্টি থেকে রাজনীতিতে আসার প্রস্তাব দিলে তিনি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নিযুক্ত হন। তৎকালীন সময়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ তাঁকে (এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু) এমপি বানানোর আশ্বাস দেন ও একাধিক বার তাঁর নাম আলোচনায় উঠে আসে।

২০১৩ সালে তিনি জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহিলা সম্পাদিকা পদ লাভ করেন। তিনি জাতীয় মহিলা পার্টির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সহ-সভাপতি ছিলেন এবং বর্তামনে আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য। এছাড়াও বর্তমানে তিনি ২য় বারেরমতো জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব পদে নিযুক্ত আছেন। এছাড়াও তিনি হাস্য উজ্জ্বল ফোরাম (হাউফো)’র ভাইস-চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সেবামূলক সংগঠনের সাথে নানান ভাবে জড়িত আছেন।

এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু একজন অগ্রগামী নারী। তিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করে চলছেন। এছাড়াও তিনি সবসময় মানব সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে চান। তিনি চাচ্ছেন, মানুষের পাশে থেকে তাঁর সেবার কাজ চালিয়ে যেতে। কর্মই মুক্তি, বুকে লালন করে অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে একজন সফল নারী হিসেবে অবদান রেখে যাচ্ছেন তিনি।

প্রাচীনকাল থেকেই সভ্যতা বিকাশে নারীর ভূমিকা অপরিসীম। নারী কখনো নদী, কখনো প্রকৃতি, কখনো কোমলতার প্রতীক, কখনো সৌন্দর্যের। নারীর জন্য যুদ্ধবিগ্রহের ঘটনাও কম নেই পৃথিবীতে। নারীর জন্য বহু প্রাণহানি কিংবা সিংহাসনচ্যুত হওয়ার ঘটনাও আছে। অন্যদিকে বিশ্ব শান্তি স্থাপনে নারীর অগ্রগামী ভূমিকা ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে আছে। তাই আমরা এ্যাড. শাহিদা রহমান রিংকু’র সাফল্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি, আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451