রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

ফটিকছড়িতে জুয়ার আসর ঘিরে দৈনিক লাখ লাখ টাকার লেনদেন

মুহাম্মদ ওমর ফয়সাল, ফটিকছড়ি(চট্টগ্রাম) থেকে :
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২১
  • ১১ বার পঠিত

ফটিকছড়ি উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ ধর্মপুর ফরাঙ্গীরখিল বড়ুয়া পাড়ায় নিয়মিত চলছে জুয়ার আসর। ফটিকছড়ি ছাড়াও আশপাশের কয়েকটি উপজেলা থেকে জুয়াড়িরা এসে এতে অংশ নিয়ে থাকেন । বিষয়টি ইতোপূর্বে একাধিকবার পুলিশকে জানালেও তারা এ ব্যাপারে নীরব ভূমিকা পালন করছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

অথচ আলোচিত এ জুয়ার আসরটি জাফতনগর পুলিশ ফাঁড়ির কাছাকাছি। বলতে গেলে পুলিশের নাকের ডগায় চলছে জমজমাট এ জুয়ার আসর। পক্ষান্তরে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ মানুষ। স্থানীয় সিএনজি চালক কুতুব উদ্দিন ও তৌহিদুল আলম নামে দুই ব্যক্তির নিয়ন্ত্রণে চলছে এ জুয়ার আসর।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বড়ুয়া পাড়ার ভিতরে রয়েছে একটি কেয়াং। কেয়াংয়ের পাশে একটি বড় পুকুর। পুকুরের উত্তর পাড়ে ধানি জমি সংলগ্ন নির্জন স্থানে রয়েছে একটি শ্মশান। এই শ্মশানের গাছ বাগানের ভিতর প্লাস্টিক আর তেরপল দিয়ে তৈরি করা হয়েছে একটি ঝুপড়ি ঘর। এ ঘরে দিনে-রাতে কয়েক দফায় চলে জুয়া খেলা।

ফটিকছড়ি উপজেলাসহ আশ-পাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত অর্ধশত সিএনজি-অটোরিক্সা ছাড়াও মোটরসাইকেলে করে এখানে এসে জড়ো হন জুয়াড়িরা। কথিত আছে, পার্শ্ববর্তী রাউজান ইউপির স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধির সন্তানসহ এলাকার পরিচিত ও প্রভাবশালী ব্যক্তিরা এখানে নিয়মিত জুয়া খেলতে আসে।

এই জুয়ার আসর ঘিরে দৈনিক ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকার লেনদেন হয় বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে। খেলতে আসা জুয়াড়িদের নিরাপত্তা ও খবরা খবর আদান প্রদানের জন্য এলাকার চতুর্দিকে নিয়োজিত থাকে তাদের নিজস্ব কর্মী। অন্যদিকে, জুয়াড়িদের চাহিদা মতো খাবার সরবরাহ করে থাকে স্থানীয় চায়ের দোকান গুলো।

স্থানীয় কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এটি বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের শ্মশান। ওই এলাকায় দিনরাত চব্বিশ ঘন্টা চলে জুয়ার আসর। একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট এখানে দীর্ঘদিন ধরে জুয়ার আসরটি পরিচালনা করে আসছে। এ ব্যাপারে কিছু বলতে গেলে তারা আমাদেরকে নানাভাবে হুমকি ধমকি দিয়ে থাকেন। তাই ভয়ে কাউকে কিছু বলতে পারি না।

বিষয়টি সম্পর্কে স্থানীয় ইউপি সদস্য শহীদুল ইসলাম আকাশের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওই এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র জুয়ার আসর চালিয়ে আসছে। ইতোপূর্বে আমরা প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়েছি। পরে পুলিশ এসে সেখানে অভিযানও চালিয়েছে। পরবর্তীতে তারা পুনরায় সংগঠিত হয়ে জুয়ার আসর পরিচালনা করে। তিনি আরো জানান, জুয়ার আসর যেখানে বসে এর পূর্ব পাশে লাগোয়া রাউজান সীমান্ত। যার কারণে পুলিশ আসার খবর পেলে জুয়াড়িরা দ্রুত সেদিকে সটকে পড়ে।

এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত বছর ওই জুয়ার আসরটিতে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করেছিল। তখন জুয়ার সাথে জড়িত তৌহিদ নামে একজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়। শীঘ্রই আবারো অভিযান পরিচালনা করা হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ফটিকছড়িতে এ ধরণের জুয়ার আসর চলতে পারে না। এ কাজের সাথে যারা জড়িত তাদের সবাইকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এ জাতীয় আরো খবর..

cover3.jpg”><img src=”https://www.bssnews.net/wp-content/uploads/2020/01/Mujib-100-1.jpg”>

via Imgflip

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি  © All rights reserved © 2011 Gnewsbd24
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazargewsbd451